fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আইন ভাঙায় গ্রেফতার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ব্লক সভাপতি, প্রতিবাদে কর্মীরা

মিল্টন পাল, মালদা: দশমীর দিন আইন ভাঙায় গ্রেফতার করা হল তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ব্লক সভাপতিকে। মালদার হরিশ্চন্দ্রপুরের ঘটনা। এরপরই বিক্ষোভ শুরু করে ছাত্র পরিষদের কর্মীরা। সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পেয়ে নিজেদের রক্ত দিয়ে চিঠি লিখে পুলিশের বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ জানান তৃণমূল ছাত্র পরিষদের নেতা কর্মীরা। জানা গিয়েছে, তৃণমূলের ছাত্র পরিষদের ব্লক সভাপতি বিমান ঝাঁ অবশ্য ওই আন্দোলনে যাননি।

দশমীর রাতে চাঁচলে আসছিলেন টিএমসিপি সভাপতি বিমান ঝাঁ। ওই সময় শান্তি মোড়ে নো এন্ট্রি থাকা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে বচসা বাধে তার। পুলিশকে হেনস্থার অভিযোগে বিমানকে গ্রেফতার করা হয়। মিথ্যে মামলায় বিমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলে পরদিন থানায় বিক্ষোভ দেখানোর সময় টিএমসিপির উপরে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। চারজন টিএমসিপি কর্মী জখম হন। জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা করায় বিমানের জেল হেফাজত হয়। বুধবার জামিন পেয়ে বিমান বাড়ি ফিরতেই এদিন টিএমসিপি আন্দোলনে নামে।

আরও পড়ুন- বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে জেলাশাসক দফতরে স্মারকলিপি দিল ভিএইচপি ও বজরঙ্গ দল

এই পরিস্থিতিতে পুলিশের বিরুদ্ধে অত্যাচার করার অভিযোগ তুলে নিজেদের রক্ত দিয়ে চিঠি লিখলেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কর্মীরা। এরপরই মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর-১ ব্লক টিএমসিপি সভাপতি জামিন পায়। শুরু হয় পথে নেমে বিক্ষোভ।  তৃণমূল পার্টি অফিসের পাশে রক্তে লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে বসে পড়েন শতাধিক ছাত্র। প্রত্যেকের হাতে ছিল নিজেদের রক্তে লেখা প্ল্যাকার্ড। তাতে লেখা- প্রতিবাদ করায় সরকারি ক্ষমতার অপব্যবহার ও নির্দোষকে গ্রেফতার, অসভ্য আচরণ, ছাত্র যুবদের উপরে আমানবিক ভাবে লাঠিচার্জের তীব্র প্রতিবাদ ও দোষীদের শাস্তি চাই। মুখ্যমন্ত্রী তাদের অভিভাবক। তাকে সন্মান জানিয়ে বিচার চেয়ে পথে নেমেছেন তারা বলে জানিয়েছেন টিএমসিপি নেতাকর্মীরা।

উত্তর মালদার সংসদ খগেন মুর্মু বলেন, এই রাজ্যে চরম অরাজকতা চলছে। শাসক দলের নেতাকর্মীরা আইন ভাঙছে। পুলিশ ব্যবস্থা নিলে পুলিশের কাজে বাধা দিচ্ছে আবার রক্ত দিয়ে চিঠি দেওয়ার নাটক করে পুলিশের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে চাইছে এখানে সরকার চলছে না সার্কাস চলছে বলা মুশকিল। জেলা তৃণমূলের কো-অর্ডিনেটর দুলাল সরকার বলেন, ঘটনাটি খুব একটা সুখকর নয় এটা না করলেই ভালো হতো। চাঁচলের এসডিপিও সজলকান্তি বিশ্বাস এই প্রসঙ্গে বলেন, সেদিন যা ঘটেছিল, তাতে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয়। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

 

Related Articles

Back to top button
Close