fbpx
আন্তর্জাতিকবাংলাদেশহেডলাইন

হাসিনা সরকার বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করার নতুন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে: বিএনপি

যুগশঙ্খ প্রতিবেদন, ঢাকা: শেখ হাসিনা সরকার বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল করার নতুন ষড়যন্ত্র শুরু করেছে বলে অভিযোগ করেছেন দেশটির প্রধান বিরোধী দল বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

রবিবার এক আলোচনা সভায় এমন অভিযোগ করেন তিনি। তিনি বলেন, এই সরকার বাংলাদেশকে শেষ করে দিয়েছে, ধ্বংস করে দিয়েছে। এখন নতুন করে তারা ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এটা একটা গভীর চক্রান্তের নীল নকশার অংশ। বাংলাদেশে তারা আবার অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করতে চায়, আবারও উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে চাপিয়ে গণতন্ত্রের সৈনিকদেরকে পেছনে ফেলে দিতে চায়, নির্যাতন করতে চায়। কুষ্টিয়ায় আমাদের দলীয় কার্যালয় ভেঙে ফেলেছে।

হাসিনা সরকারের উদ্দেশে ফখরুল বলেন, এই সময়ে যত অপকর্ম এটা আপনারা ছাড়া কে করতে পারে, আপনারাই করতে পারেন। ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য সেটা আপনারা তৈরি করছেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশের এই ভয়াবহ অবস্থা থেকে জাতিকে মুক্তি দিতে হবে। আমি অত্যন্ত সাহসের সঙ্গে একটা কথা বলতে চাই, আমাদের গ্রামের মানুষেরাও কিন্তু শক্তি হারায়নি, সাহস হারায়নি। আপনি গ্রামে যাবেন, তাদের জিজ্ঞাসা করবেন। সবাই বলছে যে, কবে পরিবর্তন হবে, কবে ডাক আসবে? সেই ডাক আসছে। আমাদেরকে তৈরি হতে হবে। এই আবদ্ধ ঘরের মধ্যে নয়, উন্মুক্ত আকাশের মধ্যে, রাজপথে আমাদের বীর সৈনিকেরা যেভাবে অসম্ভবকে সম্ভব করেছিলেন, যেভাবে সমস্ত অন্যায়কে পরাজিত করে ন্যায় প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, অসুন্দরকে পরাজিত করে সুন্দরকে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। আজকে আমাদের তরুণ জেনারেশনকে (প্রজন্ম) সেভাবে এগোতে হবে।

তিনি বলেন, লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে আমাদের এগোতে হবে। আপনারা কখনোই হতাশ হবেন না, আর কখনও হঠকারী হবেন না। ধৈর্য ধরে এগোতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, হাসিনা সরকার একে একে সবকিছুকে ধ্বংস করেছে। আমাদের গণতন্ত্রকে ধ্বংস করেছে, আমাদের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে, বেঁচে থাকার অধিকার কেড়ে নিয়েছে এবং রাষ্ট্রকে এখন তারা বিপন্ন করে ফেলেছে। দেশে গণতন্ত্র নেই। বাংলাদেশ ছাড়াও পৃথিবীর অনেক দেশেই গণতন্ত্র ভালো অবস্থায় নেই।

কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ভালোবাসা কারে কয়’ গানের প্যারোডি করে মির্জা ফখরুল বলেন, গণতন্ত্র কি কেবলই যাতনাময়।

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, অনেকে বলেন- আওয়ামি লিগের গণতান্ত্রিক পার্টি। কিন্ত কোনোদিনই গণতান্ত্রিক পার্টি ছিল না। আওয়ামি লিগ মুখে গণতন্ত্র বলে কিন্তু কাজ করে উল্টো। আওয়ামি লিগের রক্তের মধ্যেই গণতন্ত্র নেই। ওদের ডিএনএর মধ্যে আছে নির্যাতনকারী, নিপীড়নকারী।

Related Articles

Back to top button
Close