fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

হাসপাতাল থেকে নিখোঁজ করোনা আক্রান্ত রুগীর মৃতদেহ উদ্ধার পুকুর থেকে

পাপ্পা গুহ, উলুবেড়িয়া: ফুলেশ্বরের সঞ্জীবন হাসপাতাল থেকে নিখোজ হয়ে যাওয়া করোনা আক্রান্ত যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার হল হাসপাতালের অদূরে একটি পুকুর থেকে। মৃত যুবকের নাম অর্পন মন্ডল (২৫) বাড়ি রাজাপুর থানার জোয়ারগোড়ি এলাকায়। উলুবেড়িয়া থানার পুলিস মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তে পাঠিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, গত সোমবার করোনা সংক্রমণ নিয়ে অর্পন ফুলেশ্বরের সঞ্জীবন হাসপাতালে ভর্তি হয়। অভিযোগ দুইদিন হাসপাতালের চিকিৎসাধীন থাকার পর বুধবার আচমকা রাত থেকে সে নিখোঁজ হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার অর্পনকে চারিদিকে খোজাঘুজি করা হলেও কোথাও পাওয়া যায়না। পরে শুক্রবার সকালে হাসপাতালের ঢিল ছোড়া দূরত্বে একটি পুকুর থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার হয়।

এদিকে পুকুরে অর্পনের মৃতদেহ ভাসতে দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়ে স্থানীয় বাসিন্দারা তারা এলাকায় বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। এমনকি পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করতে এলে পুলিশকে ঘিরেও বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। কিভাবে যুবক হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে গেল তার তদন্তের পাশাপাশি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গ্রেফতারের দাবিতে সরব হয় তারা। এদিকে এলাকায় উত্তেজনা ক্রমশ বাড়তে থাকলে পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পৌছায় উলুবেড়িয়া থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। নামানো হয় র‍্যাফট। ঘটনাস্থলে আসেন হাওড়া গ্রামীণ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রানা মুখোপাধ্যায়।

মৃতদেহ আটকে প্রায় ঘন্টাখানেক বিক্ষোভ চলার পর পুলিশ মৃতদেহ নিয়ে এগোলেও হাসপাতালের সামনে পুনরায় মৃতদেহ আটকে দেয় উত্তেজিত জনতা। এমনকি সেই সময় কয়েকজন মহিলা হাসপাতালের গেট লক্ষ্য করে ইট ছোড়ে বলেও অভিযোগ। এখানেও প্রায় ঘন্টাখানেক বিক্ষোভ চলার পর বিক্ষোভকারীদের বুঝিয়ে পুলিশ মৃতদেহ নিয়ে যায়। বিক্ষোভকারী রমেশ সাঁধুখার অভিযোগ হাসপাতালের নিরাপত্তা ঢিলেঢালা থাকায় ওই যুবক হাসপাতাল গেছে। তিনি ঘটনায় দোষীদের গ্রেফতারের দাবি জানান।

ঘটনা সর্ম্পকে সঞ্জীবন হাসপাতালের কর্নধার ডাঃ শুভাশিষ মিত্র জানান আমরা নিজেরা তদন্ত করে দেখেছি আমাদের নিরাপত্তায় কোন গাফিলতি ছিলনা। তবুও পুলিশ তদন্ত করে যদি আমাদের দোষ প্রমান করতে পারে তাহলে তারা যা শাস্তি দেবে আমরা মাথা পেতে নেব।

Related Articles

Back to top button
Close