fbpx
দেশহেডলাইন

কঙ্গনার অফিস ভাঙায় স্থগিতাদেশ দিল বম্বে হাইকোর্ট

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  কঙ্গনা রানাওয়াত বনাম মহারাষ্ট্র সরকারের সংঘাত ক্রমেই বানিজ্য নগরীর উত্তাপ বাড়ছে। কঙ্গনার অফিস ভাঙা ঘিরে এদিন অভিনেত্রী বনাম উদ্ধব ঠাকরে সরকারের সংঘাত হাইকোর্টে গড়াল। মুম্বই এবং মহারাষ্ট্র সরকারকে নিয়ে কড়া মন্তব্যের জেরে শিব সেনার রোষানলে কঙ্গনা রানাউত। যার জেরে উদ্ধব প্রশাসনের নজর এখন অভিনেত্রীর ‘অবৈধ’বাংলো ও অফিসের দিকে। এদিকে বৃহন্মুম্বই পুরসভার এই কর্মকাণ্ড রুখতে আদালতের কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন অভিনেত্রী। কঙ্গনার অফিস ভাঙা বন্ধ করতে ইতিমধ্যেই বৃহন্মুম্বই পুরসভাকে (বিএমসি) নির্দেশ দিয়েছে বম্বে হাইকোর্ট। কঙ্গনার আবেদনের প্রেক্ষিতে বিএমসি-কে জবাব দিতেও নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আগামিকাল দুপুর ৩টেয় এ মামলার শুনানি। হাইকোর্টের নির্দেশে টিম কঙ্গনা শিবির আপাতত স্বস্তিতে বলেই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।

সূত্রে খবর, সকাল ১১টার কিছু পরেই কঙ্গনার অফিস ভাঙার কাজ শুরু হয়। যার জেরে পুরসভার কাজে নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদন জানিয়ে তড়িঘড়ি বম্বে হাই কোর্টে নিজের আইনজীবীকে পাঠিয়েছেন তিনি। অভিনেত্রীর আরজির ভিত্তিতে বেশ তৎপরতার সঙ্গেই মামলার শুনানি শুরু হয় বলে জানা গিয়েছে। এদিন মামলার রায়ে BMCকে কাজ বন্ধের নির্দেশ দিল বম্বে হাই কোর্ট। আগামীকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার বেলা ৩টের সময় আগামী শুনানি হবে। পাশাপাশি একটি রিপোর্ট ফাইলেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বিএমসিকে।

বান্দ্রার পালি হিলস এলাকায় কঙ্গনার অফিস ‘বেআইনি নির্মাণ’, এই অভিযোগে নোটিস দিয়েছে বিএমসি। বৃহন্মুম্বই পুরসভার এই নোটিসকে চ্য়ালেঞ্জ করে এদিন হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন জাতীয় পুরস্কারজয়ী অভিনেত্রী। এদিন বেলা গড়াতেই বুলডোজার নিয়ে কঙ্গনার অফিসে হাজির হয় বিএমসি-র এক দল। কঙ্গনার অফিস ভাঙার কাজ শুরু হয়।

আরও পড়ুন: ভেঙে ফেলা হল কঙ্গনার মুম্বইয়ের অফিস, ‘গণতন্ত্রের মৃত্যু’, টুইট কঙ্গনার

অফিস ভাঙার ঘটনায় টুইটারে ক্ষোভ উগরে দেন বলিউড নায়িকা।মুম্বই ফেরার পথে টুইটারে কঙ্গনা লেখেন, ‘মণিকর্ণিকা ফিল্মে প্রথম ছবি অযোধ্যায় ঘোষণা হয়েছে, এটা আমার কাছে শুধু একটা নির্মাণ নয়, রাম মন্দির। আজ সেখানে বাবর এসেছে, আজ ইতিহাসে ফের রাম মন্দির ভাঙা হবে, কিন্তু বাবর মনে রাখবে, আবারও মন্দির তৈরি হবে, জয় শ্রী রাম, জয় শ্রী রাম, জয় শ্রী রাম’।

Related Articles

Back to top button
Close