fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

মিলল না স্বস্তি, অর্ণব গোস্বামীর অন্তর্বর্তী জামিন খারিজ করল বম্বে হাইকোর্ট

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: মিলল না স্বস্তি, ফের হাইকোর্টে ধাক্কা খেলেন রিপাবলিক টিভির এডিটর-ইন-চিফ অর্ণব গোস্বামী। সোমবার তাঁর অন্তর্বর্তী জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল বম্বে হাইকোর্ট। শনিবার বিশেষ শুনানির পর রায়দান স্থগিত রেখেছিলেন বিচারপতি এস এস শিন্ডে এবং এমএস কার্নিক। সেই মামলার শুনানিতে সোমবার আবেদন খারিজ করে দেয় আদালত।

এদিকে সোমবারই অর্ণব গোস্বামীর নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করে মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখের সঙ্গে কথা বলেন সে রাজ্যের রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারী। তিনি মন্ত্রীকে বলেন, অর্ণবের সঙ্গে যেন তাঁর পরিবারকে দেখা করতে দেওয়া হয়। অর্ণবেড় বিরুদ্ধে অভিযোগ যে তিনি বিচারবিভাগীয় হেফাজতে থাকাকালীনও মোবাইল ফোন ব্যবহার করছিলেন তিনি। সক্রিয় ছিলেন সোশ্যাল মিডিয়াতেও। বিষয়টি তদন্তকারীদের নজরে আসতেই রিপাবলিক টিভির প্রধান সম্পাদককে নবি মুম্বইয়ের তালোজা জেলে সরিয়ে দেয় রায়গড় পুলিশ।

 আরও পড়ুন: এটিএম জালিয়াতি চক্রের ঘটনায় পুলিশের সাফল্য, রাজস্থান থেকে গ্রেফতার তিন দুষ্কৃতী

প্রসঙ্গত, ইন্টিরিয়র ডিজাইনার অন্বয় নায়েক ও তাঁর মায়ের আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলায় অভিযুক্ত অর্ণবকে গত বুধবার ওরলির বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাঁকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়। আলিবাগের মিউনিসিপ্যাল স্কুলে বন্দিদের জন্য তৈরি একটি কোয়ারান্টিন সেন্টারে রাখা হয়েছিল অর্ণবকে।

 

রায়গড় ক্রাইম ব্রাঞ্চের তদন্তকারী অফিসার জামিল শেখের কথায়, ‘শুক্রবার সন্ধের দিকে আমরা বুঝতে পারি, অর্ণব গোস্বামী কারও মোবাইল ব্যবহার করে সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাক্টিভ হয়েছিলেন। অর্ণবের ব্যক্তিগত মোবাইল আমরা গ্রেফতারির দিনই বাজেয়াপ্ত করেছিলাম। মামলার তদন্তকারী অফিসার হিসেবে আমি আলিবাগের জেল সুপারকে চিঠি লিখি। কোয়ারান্টিন সেন্টারে অর্ণব কী ভাবে মোবাইল ব্যবহারের সুযোগ পেলেন, সে ব্যাপারে তদন্ত রিপোর্ট চেয়ে পাঠাই। সেই সঙ্গে রবিবার সকালে অর্ণবকে তালোজা জেলে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।’

Related Articles

Back to top button
Close