fbpx
কলকাতাহেডলাইন

বেসরকারি হাসপাতালের অতিরিক্ত খরচ নিয়ে অভিযোগ জানানো যাবে বরো কো-অর্ডিনেটরকে

অভিষেক গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা: প্রয়োজনের থেকে অতিরিক্ত খরচ নেওয়া যাবে না। বৃহস্পতিবার এই মর্মে বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্য সচিব রাজীব সিনহা। রাজ্যের এই নির্দেশের পরেই তড়িঘড়ি নড়েচড়ে বসে কলকাতা পুরসভা। এদিকে বেশ কয়েকদিন ধরেই বেসরকারি হাসপাতালগুলির ওপর অতিরিক্ত খরচ নেওয়ার অভিযোগ করে রোগির পরিজনরা। কিন্তু এতদিন কোনও বিধি না থাকায় পার পেয়ে যাচ্ছিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। করোনা চিকিৎসা করতে গিয়ে অতিরিক্ত খরচের অভিযোগ এলে এবার বরো কোঅর্ডিনেটরের কাছে অভিযোগ জানাতে পারবে রোগির আত্মীয়রা।

শুক্রবার হালতু কমিউনিটি হলে স্বাস্থ্য বিভাগের তরফে এক বৈঠকে এমনটাই সিদ্ধান্ত হয়। এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য বিভাগের বিদায়ী মেয়র পারিষদ অতীন ঘোষ সহ একাধিক আধিকারিকরা এবং ১২ নম্বর বরো কো- অর্ডিনেটর সুশান্ত ঘোষ।

শুক্রবার মুখ্য সচিব ৩০ টি বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে জানিয়ে দিয়েছেন কোনরকম অতিরিক্ত খরচ নেওয়া যাবে না রোগি পরিজনদের থেকে। এমনিতে বেসরকারি হাসপাতালগুলির পরিষেবা ঠিকই রয়েছে।

তবে সাধারণ মানুষ হাসপাতালের খরচ নিয়ে বেশ কিছু অভিযোগ করেছেন সেই সংক্রান্ত বিষয়ে দৃষ্টিপাত করতে গতকালের বৈঠক নবান্ন। সেখানেই পিপিই খরচ বাবদ যে টাকা রোগির পরিজনদের থেকে নেওয়া হচ্ছে তার পরিমাণ কমাতে বলেছেন মুখ্যসচিব। এছাড়াও তার প্রশ্ন, অন্যান্য জায়গায় যেখানে ২৮০০ টাকার মধ্যে করোনা টেস্ট করা যাচ্ছে, সেখানে বেসরকারি হাসপাতাল কেনো ৪৫০০ টাকা নিচ্ছে?

এ ধরণের একাধিক ঘটনা সামনে আসতেই নড়েচড়ে বসেছে পুরসভা। এদিন তাই তড়িঘড়ি স্বাস্থ্যবিভাগের বৈঠকে বরো কো-অর্ডিনেটর কে দায়িত্ব দেওয়া হয় বেসরকারি হাসপাতালের অতিরিক্ত খরচ সংক্রান্ত কোন অভিযোগ এলে তা সরাসরি কলকাতা পুরসভায় জানাতে।

এরপর পুরসভা সেই অভিযোগ কতখানি সত্যি মিথ্যে তা খতিয়ে দেখবে তারপর তা পাঠাবে স্বাস্থ্য দফতরের কাছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের সচেতন করার দায়িত্ব দেওয়া হয় এই কো-অর্ডিনেটরের উপর। জানিয়ে দেওয়া হয় বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা করতে গিয়ে খরচ সংক্রান্ত কোন রকম অভিযোগ থাকলে তা যেন ওই ব্যক্তির সংশ্লিষ্ট এলাকার কো- অর্ডিনেটরকে জানানো হয়। এরপর সেই অভিযোগ অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে প্রশাসন।

 

Related Articles

Back to top button
Close