fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

জিরো পয়েন্ট দিয়ে ভারতে প্রবেশ নিয়ে বাংলাদেশীদের সঙ্গে বিএসএফ-র গোলাগুলি

বিজয় চন্দ্র বর্মন, মেখলিগঞ্জ: লকডাউন আবহে বৃহস্পতিবার ভারত – বাংলাদেশ সীমান্তের আন্তর্জাতিক বৈদেশিক বানিজ্যস্থল মেখলিগঞ্জের চ্যাংড়াবান্ধা ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে প্রবেশে চেষ্টা এক বাংলাদেশি মানসিক ভারসাম্যহীন যুবকের। অভিযোগ, প্রবেশে ইন্ধন জুগিয়েছিল কিছু বাংলাদেশি লোক। সেটা আঁচ করতে পেরে প্রবেশের মুখে বাঁধা দেয় ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর জওয়ানরা। বিষয়টি ভারতীয় সেনা বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড কর্তাদের নজরে আনেন। কিন্তু তাতে কোনও কাজ না হওয়ায় বিএসএফ ওই বাংলাদেশি মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে বাংলাদেশে ফিরিয়ে দেয়। তার এতে জিরো পয়েন্টে প্রায় তিন হাজার বাংলাদেশি লোক এসে ভারতীয় সেনাকে লক্ষ্য করে মারমুখি হয়ে ওঠে। বিএসএফ কে লক্ষ্য করে এলোপাথারি পাথর ছুঁড়তে থাকে বাংলাদেশিরা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট এলাকায় চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

অভিযোগ, বাংলাদেশি লোকেরা ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনীকে লক্ষ্য করে পাথর ছুঁড়তে থাকে। এতে আত্মরক্ষার্থে ও উত্তেজনা প্রশমনের জন্য পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ভারতীয় সেনা দুই রাউন্ড গুলি চালিয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএসএফ এর ডিআইজি আর আর শর্মা। তিনি আরও জানিয়েছেন, পরিস্থিতি বর্তমানে নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

আরও পড়ুন: লকডাউনের মধ্যে ফের এগিয়ে এল ছাত্রসমাজ, রক্ত পেলেন মুমূর্ষু রোগী

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, কিছুদিন আগে ভারত – বাংলাদেশ সীমানার খোলা সীমান্ত দিয়ে এক জন মানসিক ভারসাম্য হীন ব্যক্তি ভারতে ঢুকে পড়ে। তার কয়েকদিন বাদে ফের একই ঘটনায় সীমান্তে করোনা ছড়ানোর আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার দিন চ্যাংড়াবান্ধার জিরো পয়েন্ট দিয়ে ওই বাংলাদেশের মানসিক ভারসাম্য হীন যুবকের ভারতে প্রবেশের চেষ্টায় উঠছে নানান প্রশ্ন। ওই বাংলাদেশি যুবক আদতে মানসিক ভারসাম্য হীন কিনা বা কেন ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করেছিল সে বিষয়ে কোনও কিছু জানা যায়নি। ওই মানসিক ভারসাম্যহীনকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাতেই বাংলাদেশিরা মারমুখি হয়ে ভারতের সীমান্ত জওয়ানদের ওপর চড়াও হলো কেন এনিয়েও উঠছে প্রশ্ন। ওই যুবকের ভারতে প্রবেশের চেষ্টায় অন্ন রকমের চক্রান্ত রয়েছে কিনা সেটা খতিয়ে দেখছে বিএসএফ।

Related Articles

Back to top button
Close