fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

একুশের আগেই লাগু সিএএ

রক্তিম দাশ, কলকাতা: একুশের ভোটের আগেই বাংলায় সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ)। ধর্মীয় অত্যাচারের কারণে এদেশে আগত শরনার্থী, মতুয়াদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। উদ্বাস্তু এবং মতুয়া নেতৃত্বদের একান্ত আলোচনায় অমিত শাহ এমনটাই বলেছেন বলে সূত্রের খবর।
সিএএ আইন দ্রুত লাগু করার জন্য বিজেপি সরকারের ওপর চাপ বাড়াচ্ছে মতুয়া এবং শরনার্থীরা। সামনেই বাংলার বিধানসভা ভোট। গত ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে নাগরিকত্ব ইস্যুকে সামনে রেখে রাজ্য রাজনীতিতে মতুয়া এবং উদ্বাস্তু ভোট সুইং করে তৃণমূলের থেকে বিজেপির দিকে গিয়েছে। কিন্তু লোকসভা নির্বাচনের পর সংসদে সিএএ পাশ হলেও এখনও তা আইন করে লাগু না হওয়ায় প্রকাশ্যেই ক্ষোভ জানাচ্ছেন উদ্বাস্তু-মতুয়ারা।

বাংলার বিধানসভা ভোটে এর প্রভাব পড়ার প্রবল সম্ভবনা রয়েছে এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। মতুয়াদের এই ক্ষোভকে কাযে লাগিয়ে ঘোলা জলে মাছ ধরতে আসরে নেমেছে তৃণমূল শিবির। ফলে দ্রুত ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে পড়েছে বিজেপি। দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা সম্প্রতি উত্তরবঙ্গ সফরে এসে বলেছেন, ‘দ্রুতই সিএএ লাগু হবে।’

কিন্তু বিজেপির তরফে কোনও আশ্বাস নয়, এ প্রশ্নে মোদি সরকারের সদিচ্ছা নিয়ে সরব হয়েছে মতুয়ারা। চাপ বাড়ছে বনগাঁ লোকসভার সাংসদ শান্তনু ঠাকুরের ওপরেও। কারণ তিনি একাদিকে যেমন বিজেপি নেতা অপর দিকে তিনি মতুয়া মহাসংঘের সংঘাধিপতিও। এমতবস্থায় গেরুয়া শিবির এই ভোট ব্যাংককে ধরে রাখতে ব্যাপক তৎপরতা শুরু করেছে।

সূত্রের খবর, গত ২৩ অক্টোবর দিল্লিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিষয়টি নিয়ে বৈঠক করেন। এই বৈঠকে ছিলেন শান্তুনু ঠাকুর, সুব্রত ঠাকুর এবং উদ্বাস্তু আন্দোলনের নেতা আইনজীবী অম্বিকা রায়। ছিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা এবং বাংলায় দায়িত্বে থাকা কৈলাশ বিজয় বর্গী। বৈঠক সূত্রের খবর, বাংলায় সিএএ লাগু না হওয়া নিয়ে মতুয়া এবং উদ্বাস্তুদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ তৈরি হয়েছে বিজেপির বিরুদ্ধে তা তাঁরা অমিত শাহকে জানান। পাশাপাশি এই ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ বাংলার আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে পড়বে বলেও তাঁরা সর্তক করেন।
সূত্রের খবর, অমিত শাহ তাঁদের আশ্বস্ত করে বলেছেন,‘ সিএএ আমরা লাগু করবই। এই নিয়ে সংসদে আমরা লড়াই করে বিল পাশ করেছি। পিছিয়ে আসা সম্ভব নয়। করোনা জনিত কারণে এই বিলকে আইনে পরিণত করা যায়নি। কিন্তু একুশের আগেই এই সমস্যা মিটবে’।

বৈঠকে কথা স্বীকার করে অম্বিকা রায় বলেন,‘ অমিত শাহজি বলেছেন বলেই আমরা আশাবাদী। এই আইন লাগু না হওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই।’
কলকাতায় অমিত শাহ-র সাম্প্রতিক সফরেও একই ভাবে সিএএ লাগু করার দাবি তোলে মতুয়া মহাসংঘ। সল্টলেকে পূর্বাঞ্চল সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে বিজেপির আয়োজিত বৈঠকে মতুয়া মহাসংঘের সহ সম্পাদক মহিতোষ বৈদ্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দৃষ্টি আর্কষণ করে বলেন,‘ মতুয়াদের দাবিকে বিজেপি সম্মানের সঙ্গে গ্রহণ করলে ভালো হবে। মতুয়ারা খুবই আবেগপ্রবণ। রাজ্যে ৯৩ বিধানসভা আসনে কমবেশি মতুয়াদের প্রভাব রয়েছে। একুশের বঙ্গ বিজয়ে মতুয়াদের একান্ত দরকার। কারণ পূর্বের ইতিহাস তাই বলে।’

আরও পড়ুন: ফের উত্তপ্ত আফগানিস্থান, কান্দাহারে বোমা বিস্ফোরণে মৃত অন্তত ৪, জখম বহু

অপরদিকে, বঙ্গ বিজেপির উদ্বাস্তু সেলের পক্ষ থেকেও বিষয়টি নিয়ে গত ১৬ অক্টোবর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। জানা গিয়েছে, এই চিঠিতেও উদ্বাস্তুদের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে দ্রুত সিএএ লাগু করার আবেদন করা হয়েছে।
প্রবীণ বিজেপি নেতা তথাগত রায় বলেন,‘ সিএএ দ্রুত লাগু করা নিয়ে অমিত শাহজির সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি জানিয়েছেন, এটা আমাদের অন্যতম এজেন্ডা। সিএএ লাগু হচ্ছেই।’

Related Articles

Back to top button
Close