fbpx
কলকাতাবিনোদনহেডলাইন

টেলিভিশন থেকে সৃজিতের সিনেমা! রোল পাইয়ে দেওয়ার নামে ৩ বছর ধরে ১৯ জনকে প্রতারণা, ধৃত অভিনেত্রী-সহ সঙ্গী

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: টেলিভিশন থেকে সিনেমায় চান্স পাওয়ার জন্য বিভিন্ন অভিনেতা-অভিনেত্রীর কাছে চেষ্টা করতে থাকেন অনেক উঠতি শিল্পীই। নিজে অভিনেত্রী হওয়ায় সেটাকেই হাতিয়ার করেছিলেন এক মহিলা। পুলিশ সূত্রে খবর, আর্টিস্ট ফোরামের সদস্য এক সঙ্গীকে সঙ্গে নিয়ে ২০১৮ সাল থেকে ১৯ জনকে প্রতারণা করে প্রায় ২৩ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন অভিনেত্রী তিতাস ঘোষ। তাকে এবং তার সঙ্গী সুজয় ভুঁইয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে।গ্রেফতারের খবর প্রকাশ্যে আসতেই বাতিল করা হয় আর্টিস্ট ফোরামে দু’জনের সদস্যপদ।
প্রাথমিক ভাবে চারু মার্কেট থানায় এই সংক্রান্ত অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরেই এই ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ। ওই অভিনেত্রীকে ৩০ আগস্ট থেকে জেরাও করা হয়। তাকে সমস্ত টাকা ফেরত দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়। কিন্তু তারপরেও ওই অভিনেত্রী কোনওরকম গুরুত্ব দেয়নি। এরপরেই তাকে ও তার ওই সঙ্গীকে গ্রেফতার করা হয়। এই ঘটনায় যুক্ত আরও দু’জনের সন্ধানে খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।
কি ভাবে চলত এই প্রতারণা চক্র? 
পুলিস জানিয়েছে, টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে ফিল্ম ও সিরিয়ালে অভিনয়ের সুযোগ করে দেওয়ার নামে বড়সড় প্রতারণা চক্র চলছিল গত ৩ বছর ধরে। কলকাতা থেকে মফঃস্বল ও প্রত্যন্ত গ্রাম থেকে আসা তরুণ-তরুণীদের রঙিন স্বপ্ন দেখানো হত। বিভিন্ন সিরিয়াল ও সুযোগের প্রতিশ্রুতি, পোর্টফোলিও বানানোর নামে একাধিক তরুণ-তরুণীর কাছে মোটা অঙ্কের টাকা তুলত অভিযুক্তরা। এখনও পর্যন্ত ১৯ জনের একটি তালিকা পাওয়া গিয়েছে, যাঁরা এই প্রতারণার শিকার হয়েছেন। এখনও পর্যন্ত ২৩ লক্ষ টাকার প্রতারণা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।
নদিয়ার এক ব্যক্তির অভিযোগে তিতাস ঘোষ, সুদীপ্ত ব্যানার্জি, সুজয় ভুঁইয়া, পারমিতা ভুঁইয়া, সৌমিক স্যানাল, সুশান্ত ভট্টাচার্য-সহ আরও কয়েক জনের নামে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২০ বি, ৪২০, ৪৬৭, ৪৬৮ এবং ৪৭১ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। যে অভিযোগকারী চারু মার্কেট থানায় অভিযোগ করেন তিনি এই ছয়জনের নাম জানিয়েছিলেন। তিতাস ঘোষ ও সুজয় ভুঁইয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিতাসের বাড়ি থেকে বেশ কিছু নথি উদ্ধার করা হয়। বাকিদের খোঁজে তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close