fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ছট পুজোর প্রস্তুতি কোচবিহারে, নদীর জল গভীর থাকার জন্য শুরু সাঁকো তৈরির কাজ

নিজস্ব প্রতিনিধি, কোচবিহার: শারদ উৎসবের ঠিক পরেই কোচবিহারের অন্যতম বড় উৎসব ছট পুজো। কোচবিহার জেলায় বিহারি সম্প্রদায় মানুষ বসবাস করেন। তাদেরই সব থেকে বড় উৎসব এই ছট পুজো। সম্প্রতি বেশ কয়েক বছর থেকে ছট পুজোতে শামিল হচ্ছেন বাঙালিরাও। পুজোর দুই দিন অর্থাৎ সন্ধ্যেবেলা এবং পরের দিন সকালবেলায় রীতিমতো সাজো সাজো পরিবেশ তৈরি হয় কোচবিহার তোর্ষা নদীর দুই ধারে। যার প্রস্তুতি ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে।

নদীতে জল থাকার কারণে সাঁকো তৈরি কাজ শুরু করে দিয়েছে কোচবিহার পৌরসভা। বেশ কিছু জায়গায় নদীর জল অত্যন্ত গভীর, আগে থেকে সাঁকো তৈরি না করা হলে পরবর্তীতে সমস্যা হতে পারে, এই কথা ভেবেই সাঁকো তৈরির কাজও শুরু হয়েছে। একইসঙ্গে ঘাট চিহ্নিতকরণের কাজও শুরু করেছেন ভক্তরা, প্রতি বছর তোর্ষা নদীর দুই ধারে প্রচুর মানুষ নিজস্বভাবে ঘাট তৈরি করে পুজোর ব্যবস্থা করেন, ইতিমধ্যেই সেই কাজ শুরু হয়ে গেছে। সাঁকো তৈরির কাজ ও প্রাথমিক ভাবে শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন:হিন্দুদের ভয় দেখিয়ে বাংলাদেশ ত্যাগে বাধ্য করা হচ্ছে: রাণা দাশগুপ্ত

স্থানীয় বাসিন্দা এবং ভক্ত গদাই দাস জানান, ইতিমধ্যেই আস্তে আস্তে ঘাট তৈরির কাজ শুরু হয়েছে, সাঁকো তৈরির কাজও শুরু করা হয়েছে। খুব দ্রুত কাজগুলো সম্পন্ন হয়ে যাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। প্রসঙ্গত, অল্প সময়ের মধ্যে সকলেরই করার জন্য ২০১৯ সালে সাঁকো ভেঙে দুর্ঘটনা ঘটেছিল ছট পুজোর দিন। বেশ কিছু মানুষ আহত হয়েছিলেন, তাই এবার আর কোনওরকম ঝুঁকি নিতে নারাজ প্রশাসন। ইতিমধ্যে মহকুমা প্রশাসনের একটি বিশেষ দল ছট পুজোর ঘাট এবং নদীর ঘাট পরিদর্শন করে এসেছেন। তারপর থেকেই সাঁকো তৈরির কাজ শুরু হয়েছে বলে প্রাথমিক সূত্রে জানা গেছে।

Related Articles

Back to top button
Close