fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

অভিনব পদ্ধতিতে ঝাড়গ্রামে বঙ্গধ্বনি কর্মসূচি পালন করলেন ছত্রধর মাহাতো

সুদর্শন বেরা ,ঝাড়গ্রাম:  রাজ্য সরকারের দশ বছরের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক প্রকল্পের কাজের খতিয়ান তুলে ধরে বঙ্গধ্বনি কর্মসূচির মাধ্যমে গ্রামে গ্রামে গিয়ে মানুষের হাতে রিপোর্ট কার্ড তুলে দেওয়ার কর্মসূচি শুরু করেছে তৃণমূল। সেই কর্মসূচিকে সফল করে তোলার জন্য অভিনব পদ্ধতি গ্রহণ করলেন তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক ছত্রধর মাহাতো।  সোমবার ঝাড়গ্রাম জেলার ঝাড়গ্রাম ব্লকের সর্ডিহা, শুকনাখালি, লোধাসুলি সহ বেশ কয়েকটি গ্রামে যায় ছত্রধর মাহাতো।তার সঙ্গে ছিলেন ঝাড়গ্রাম পঞ্চায়েত সমিতির সভানেত্রী রেখা সরেন, নারী ও শিশু কল্যাণ দফতর এর সদস্য নিয়তি মাহাতো, ঝাড়গ্রাম ব্লক তৃণমূল এর সভাপতি নরেন মাহাতো সহ দলীয় নেতা ও কর্মীরা।তিনি সোমবার গ্রামে গ্রামে গিয়ে বঙ্গধ্বনি কর্মসূচি পালন করেন।

ঝাড়গ্রাম ব্লকের বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে তিনি মানুষের অভাব অভিযোগ মন দিয়ে শোনেন এবং তিনি গ্রামবাসীদের হাতে রিপোর্ট কার্ড তুলে দেন। এরপর তিনি ঝাড়গ্রামের শুকনাখালি গ্রামে সাবির আলী নামে এক কৃষকের খামারে পৌঁছে যায় ।সেখানে গিয়ে ধান ঝাড়াই মেশিনে বেশ কিছুক্ষণ ধরে ধান ঝাড়াই করে জনসংযোগ কর্মসূচি করেন । তাঁকে সহযোগিতা করেন তার স্ত্রী নিয়তি মাহাতো। ছত্রধর মাহাতো ধান ঝাড়ার কাজ করছে জানতে পেরে বহু মানুষ ভিড় জমায় সাবির আলীর খামারে।ধান ঝাড়ার কাজ শেষ করে তিনি গ্রামবাসীদের সাথে কথা বলেন।এরপর রাজ্য সরকারের উন্নয়নের বিভিন্ন কাজকর্মগুলির খতিয়ান তুলে ধরেন । তিনি প্রতিটি মানুষের হাতে রিপোর্ট কার্ড তুলে দেন। তিনি গ্রামবাসীদের বলেন আপনাদের পাশে মুখ্যমন্ত্রী রয়েছেন আপনারা মুখ্যমন্ত্রী পাশে থাকুন তিনি আপনাদের বাড়িতে উন্নয়নে ডালি পৌঁছে দেবেন অশুভ শক্তি বিজেপি এই এলাকায় লাগামহীন সন্ত্রাস শুরু করেছে তাই সাম্প্রদায়িক শক্তি বিজেপিকে আপনারা জায়গা করে দেবেন না যারা এখন বড় বড় কথা বলছে তারা লোকসভা নির্বাচনে যে প্রতিশ্রুতি ছিল তার একটাও প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পেরেছে কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জঙ্গলমহলের উন্নয়নে যা কথা দিয়েছিলেন তার থেকে অনেক বেশি কাজ করেছেন ।

তিনি সকলকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে থাকার জন্য আবেদন জানান এবং ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে এই জঙ্গলমহল থেকে তিনি উৎখাত করার ডাক দেন ।এরপর তিনি লোধাসুলি গ্রামে বঙ্গধ্বনি কর্মসূচি পালন করার জন্য যান। সেখানে একটি খেলার মাঠে যুবকদের অনুরোধে ফুটবল খেলতে নেমে পড়েন ছত্রধর মাহাতো। যারফলে ফুটবল খেলা দেখতে আসা যুবকেরা উৎসাহিত হয়ে ওঠেন। প্রায় ৩০ মিনিট তিনি ফুটবল খেলেন। ফুটবল খেলে তিনি সকলকে অবাক করে দেন। ওই মাঠে থাকা উপস্থিত সকলের হাতে তিনি উন্নয়নের খতিয়ান তুলে রিপোর্ট কার্ড তুলে দেন । কখনো ধান ঝাড়াই করে,কখনো ফুটবল মাঠে গিয়ে ফুটবল খেলে জনসংযোগের কাজ যেমন তিনি একদিকে করলেন, তেমনি মানুষকে বার্তা দিলেন পাশে থাকার। তাই সর্বস্তরের মানুষ ছত্রধর মাহাতোর কাজে খুব খুশি ।

ছত্রধর মাহাতো ওই এলাকার গ্রামবাসীদের বলেন আমি আপনাদের পাশে আগেও ছিলাম এখনো আছি আগামী দিনেও থাকবো । আমার বিরুদ্ধে কুৎসা অপ্রচার করে আমাকে দমিয়ে রাখা যাবে না। আমি মানুষের জন্য আন্দোলন আগেও করেছি আগামী দিনে করব। সব ধর্মের মানুষকে সঙ্গে নিয়ে।এছাড়াও সোমবার ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুরএক ব্লকের শাসড়া এলাকায় গিয়ে তৃণমূলের ঝাড়গ্রাম জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুমন সাহু দলের নেতা হেমন্ত ঘোষ, সনৎ দাস সহ দলের নেতা কর্মীরা মানুষের হাতে রিপোর্ট কার্ড তুলে দেন। তৃণমূলের ঝাড়্গ্রাম জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুমন সাহু বলেন গ্রামে গ্রামে গিয়ে বঙ্গধ্বনি কর্মসূচি সফল করে তোলার জন্য মানুষের সাথে কথা বলেছি। তাদের অভাব-অভিযোগের কথা মন দিয়ে শুনেছি। সেই সঙ্গে তাদের হাতে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরে রিপোর্টকার্ড তুলে দিয়েছি।

তিনি বলেন মানুষ মমতার সাথে রয়েছে, তাই মমতা মানুষের পাশে দাঁড়াতে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি যেমন নিয়েছেন তেমনি মানুষের কাছে বিভিন্ন প্রকল্পের খতিয়ান তুলে ধরে রিপোর্টা কার্ড পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। তিনি আরো বলেন যে মানুষ ভুল করে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি কে ভোট দিয়েছিল। বিধানসভা নির্বাচনে মানুষ আর সেই ভুল করবেনা। বিজেপি যতই উৎপাত করুক ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনের পর তাদের এলাকায় খুঁজে পাওয়া যাবে না ।জঙ্গলমহলের মানুষ তৃণমূলের সাথে রয়েছে আগামী দিনেও থাকবে। তৃণমূল গরিব মানুষের পাশে সবসময় ছিল আগামী দিনেও থাকবে।

Related Articles

Back to top button
Close