fbpx
কলকাতাহেডলাইন

‘স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে কোনও রাজ্যপাল মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে এমন আচরণ করেননি’, রাজ্যপালকে পত্রাঘাত মুখ্যমন্ত্রীর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ফের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর। রাজ্য-রাজ্যপাল দ্বন্দ্ব কিছুতেই থামছে না। এবার ১৩ পাতার চিঠি পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জগদীপ ধনখড়কে চিঠি দিয়ে নিজের ক্ষোভের কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যপালের দেওয়া গত দুটি চিঠির একাধিক লাইনের কথা উল্লেখ করে মুখ্যমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন, রাজ্যপাল তাঁর সরকারের মন্ত্রী ও আধিকারিকদের অপমান করছেন বলেও চিঠিতে লেখেন মুখ্যমন্ত্রী। একজন রাজ্যপালের কাছ থেকে এরকম চিঠি পেয়ে তিনি মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে রাগের চেয়ে দুঃখ বেশি পেয়েছেন। কী করে বারংবার একটি নির্বাচিত সরকার সম্পর্কে একজন সাংবিধানিক প্রধান এই ধরনের মন্তব্য করতে পারেন তা অবাক করার মতই ঘটনা। ১৩ পাতার চিঠির প্রতি ছত্রেই রাজ্যপালের করা অভিযোগগুলির কড়া জবাব দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, ‘বর্তমান পরিস্থিতিতে রাজ্যপালের কাছ থেকে সহযোগিতাই কাম্য। তার বদলে রাজভবন থেকে সহযোগিতার বদলে সমালোচনা করা হচ্ছে। যা খুবই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা বটে।’

আরও পড়ুন: মহামারী সংকট! অর্থনীতিকে সুস্থ রাখতে দ্বিতীয় প্যাকেজের পথে কেন্দ্র?

মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, যে ভাষায় তাঁকে আক্রমণ করেছেন রাজ্যপাল, স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে আর কোনও রাজ্যপাল এমন আচরণ করেননি। করোনা পরিস্থিতিতে যখন সরকার প্রচণ্ড কাজের চাপে, ঠিক তখনই রাজ্যপালের ব্যবহার এবং ধারাবাহিক আক্রমণাত্মক মনোভাব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রীর চিঠি পেয়েই টুইটে পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে ধনখড় লিখেছেন, ‘সংকটের এই মুহূর্তে আমি তাঁকে অনুরোধ করছি গুরুতর পরিস্থিতির দিকে মনোনিবেশ করুন। জনসাধারণের দুর্দশাগুলি দূর করার লক্ষ্যে একযোগে কাজ করতে হবে।’ মুখ্যমন্ত্রীর পাঠানো চিঠি প্রসঙ্গে রাজ্যপাল টুইটে আরও লিখেছেন, ‘মাথার উপর ছাদ ভেঙে পড়ার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। একত্রে কাজ করার জন্য অনুরোধ করে যাচ্ছি।’

Related Articles

Back to top button
Close