fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

সীমান্তে উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যে পাক বায়ুসেনাকে ড্রোন দিচ্ছে চিন!

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: চিন ও ভারতের সংঘাতের আবহে পাকিস্তান বায়ুসেনাকে চারটি ড্রোন পাঠাচ্ছে চিন। লাদাখে উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যে চিনের এই ড্রোন পাঠানোর সিদ্ধান্ত একটি তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা।

তবে কি ভারত-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক আরও ভালো হতেই ইসলামাবাদের কাছে আরও আস্থাভাজন হয়ে উঠতে চাইছে চিন!  রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, চিন আরও ভারতের মধ্যে যে সংঘাত শুরু হয়েছে যুদ্ধ লাগলে পাকিস্তান বড়সড় ভূমিকা নিতে। সেই কারণই হয়তো ড্রোন পাঠিয়ে পাক সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক আরও মজবুত করছে।

প্রতীকি ছবি

ড্রোনগুলি উইং লুং টু’র অত্যাধুনিক সংস্করণ। উইং লুং টু একসঙ্গে ১২টি ক্ষেপণাস্ত্র বহন করতে পারে। সেই সঙ্গে অনেক উঁচু থেকে নজরদারি চালাতেও পারে। শুধু তাই নয় চিন-পাক যৌথ উদ্যোগে আরও ৪৮টি জিজে-২ ড্রোনও তৈরি হচ্ছে। কাজাখস্তান, তুর্কনেমিস্তান, আলজেরিয়া, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত সহ এশিয়া এবং পশ্চিম এশিয়ার বহু দেশে আগে এই অস্ত্রবাহী ড্রোন বিক্রি করেছে বেজিং।

আরও পড়ুন:বন্যায় বিপর্যস্ত জাপান, অতিরিক্ত সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে’র

যদিও প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, পশ্চিম সীমান্ত দিয়েও যাতে ভারতের উপরে হামলা চালানো যায়, তার জন্যই ইসলামাবাদকে ওই অত্যাধুনিক ড্রোন দিচ্ছে বেজিং। ভারতের সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সুসম্পর্কের পরেই চিনের সঙ্গে পাক সরকারে আরও বেশি করে সখ্যতা তৈরি করেছে চিন।

এদিকে করোনা ভাইরাস নিয়ে বার বার চিনকে আক্রমণ শানিয়েছে মার্কিন প্রসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।  আমেরিকার সঙ্গে সম্পর্ক তলানিতে ঠেকেছে চিনের।  এরপরেই বেজিংয়ের পাশে দাঁড়িয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।  এদিকে এই অবস্থায় চিনের কাছ থেকে পাকিস্তানকে সরিয়ে আনার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ওয়াশিংটন। কিন্তু সফলতা আসেনি।

 

Related Articles

Back to top button
Close