fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বিজেপি বিধায়কের মৃত্যুর ঘটনায় চার্জশীট পেশ CID-র

শান্তনু চট্টোপাধ্যায়, রায়গঞ্জ: হেমতাবাদের প্রয়াত বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্র নাথ রায়ের মৃত্যু মামলায় শুক্রবার চার্জশিট দাখিল করল সি আই ডি। প্রয়াত বিজেপি বিধায়কের স্ত্রী চাঁদিমা রায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে মৃত্যুর তদন্ত শুরু করে পুলিশ। পরবর্তীতে এই মামলা সি আই ডি’র হাতে তুলে দেয় রাজ্য সরকার। এই ঘটনায় সি আই ডি নিলয় সিংহ ও মাবুদ আলি নামে দুজনকে গ্রেফতার করে।

ধৃতদের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা, প্রতারনার মামলার ৩৪ আই পি সি ৩০৬/৪২০/১২০ ধারা লাগু করে শুক্রবার রায়গঞ্জ জেলা আদালতে ৬৯৩ পাতার চার্জশিট দাখিল করে সি আই ডি। যদিও সি আই ডি ‘র এই চার্জশিট দেওয়া নিয়ে সন্তুষ্ট নন প্রয়াত বিজেপি বিধায়কের স্ত্রী চাঁদিমা রায় এবং তাঁর দল বিজেপি। ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবি করেছেন তাঁরা।
উল্লেখ্য গত ১৩ জুলাই বাড়ি থেকে দু কিলোমিটার দূরে বালিয়ামোড় এলাকায় একটি বন্ধ থাকা মোবাইলের দোকানের বারান্দায় ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয় হেমতাবাদের বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্র নাথ রায়ের। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তোলপাড় হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। প্রাথমিক ভাবে পুলিশ এটিকে আত্মহত্যার ঘটনা বলে জানালেও মৃত বিধায়কের স্ত্রী চাঁদিমা রায় খুনের লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

আরও পড়ুন: ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি, করোনা পরবর্তীতে আরও প্রবল স্বাস্থ্য বিপর্যয়ের মুখে পড়তে পারে ভারত

প্রয়াত বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্র নাথ রায়ের মৃতদেহে থাকা জামার পকেট থেকে একটি সুসাইডাল নোট উদ্ধার করে পুলিশ। তাতে নিলয় সিংহ ও মাবুদ আলি নামে দুজনকে তাঁর মৃত্যুর জন্য দায়ী করে যান প্রয়াত বিধায়ক। এদিকে বিজেপি বিধায়কের হত্যার ঘটনার প্রতিবাদে হেমতাবাদে ছুটে আসেন বিজেপির কেন্দ্রীয় ও রাজ্য নেতৃত্ব। সিবিআই তদন্তের দাবিতে ব্যাপক আন্দোলন শুরু করে বিজেপি। ঘটনার কিছুদিন পর বিজেপি বিধায়কের মৃত্যুর ঘটনার তদন্তের ভার সিআইডি’র হাতে তুলে দেয় রাজ্য সরকার। এরপর সি আই ডি প্রয়াত বিধায়কের সুসাইডাল নোটে উল্লিখিত নিলয় সিংহ ও মাবুদ আলিকে গ্রেফতার করে। শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্তের কাজ। ঘটনার দুমাসের মাথায় শনিবার বিজেপি বিধায়কের মৃত্যুর ঘটনার চার্জশিট দাখিল করল সি আই ডি। সি আই ডি’র দেওয়া চার্জশিট নিয়ে চরম অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রয়াত বিধায়কের স্ত্রী চাঁদিমা রায়।

আরও পড়ুন: বিড়াল থেকেও ছড়াতে পারে করোনা ভাইরাস, আতঙ্কের কথা শোনালেন বিশেষজ্ঞরা

তিনি বলেন, “আমার স্বামীকে খুন করা হয়েছে, আমি খুনের মামলা দায়ের করেছিলাম। কিন্তু সি আই ডি যে চার্জশিট দখল করেছে সেটা ঠিক নয়। তদন্ত সঠিক হচ্ছে না।” অন্যদিকে জেলা বিজেপি সভাপতি বিশ্বজিত লাহিড়ী বলেন,” পরিবারের পক্ষ থেকে ৩০২ ধারায় খুনের মামলা রুজু করা হয়েছিল। কিভাবে সি আই ডি এটিকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলা করে চার্জশিট দিল? তাঁর অভিযোগ যেহেতু একজন বিজেপি বিধায়কের মৃত্যু হয়েছে তাই তড়িঘড়ি করে একটি চার্জশিট দাখিল করেছে সি আই ডি। এই চার্জশিট এ আমরা খুশী নই। প্রকৃত সত্য উদঘাটনের জন্য সিবি আই তদন্তের দাবী করছি আমরা।

Related Articles

Back to top button
Close