fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বর্ধমানের তেজগঞ্জে বৃদ্ধ খুনের ঘটনার তদন্তে সিআইডি

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: বর্ধমান শহরের তেজগঞ্জের বাড়িতে একা থাকা বৃদ্ধকে খুনের ঘটনার তদন্তে নামল সিআইডি। বৃহস্পতিবার বিকালে তেজগঞ্জ স্কুল পাড়ার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় ৮৪ বছর বয়সী বৃদ্ধ গোরাচাঁদ দত্ত’র রক্তাক্ত মৃতদেহ। এই খুনের ঘটনার তদন্তে শুক্রবার দুই সদস্যের সিআইডি দল মৃতের বাড়িতে পৌঁছায়। যার নেতৃত্বে রয়েছেন সিআইডির ফিঙ্গার প্রিন্ট বিশেষজ্ঞ শৈবাল দত্ত। তারা মৃতের বাড়ির বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখেন। বাড়িতে থাকা একটি আলমারি সহ অন্যান্য আসবাবপত্র থেকে তারা নমুনাও সংগ্রহ করেন। তার মধ্যে আলমারিতে আঙুলের ছাপ মিলেছে বলে খবর। চুরিতে বাধা পেয়েই যে দুষ্কৃতীরা বৃদ্ধকে খুন করে পালিয়েছে তা এদিন সিআইডি কর্তাদের তদন্তের গতিপ্রকৃতি থেকেই স্পষ্ট হয়ে যায়।

আরও পড়ুন: ৬ জুলাই থেকে হাইকোর্টে হাজির হয়ে শুনানির পক্ষে মত আইনজীবীদের

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্ধমান শহরের তেজগঞ্জের বাড়িতে থাকতেন দুর্গাপুর স্টিল প্ল্যান্টের অবসরপ্রাপ্ত কর্মী গোরাচাঁদ দত্ত ও তার স্ত্রী মীরা দেবী। বৃদ্ধ দম্পতির ছেলে পরিবার নিয়ে দুর্গাপুরে থাকে। মেয়ে জামাইও থাকে বাইরে। তেজগঞ্জের বাড়িতে গোরাচাঁদবাবু ও তার স্ত্রী মীরাদেবী থাকতেন। ভগ্নীপতির সঙ্গে দেখা করার জন্য বৃহস্পতিবার সকালে মীরাদেবী বাড়ি থেকে বের হন। তাঁর স্বামী বাড়িতে একাই ছিলেন। ওইদিন বিকাল ৪টে নাগাদ মীরাদেবীর ভগ্নীপতি তাঁকে তেজগঞ্জের বাড়ির সামনে নামিয়ে চলে যান। বাড়িতে ঢুকতে গিয়েই মীরাদেবী দেখেন বাড়ির গেট খোলা রয়েছে। হলুদ গেঞ্জি পরা এক অপরিচিত যুবক ঘর থেকে বেরিয়ে আসছে। এরপর ঘরে ঢুকেই মীরাদেবী দেখেন ঘরের ভিতরে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে তাঁর স্বামীর রক্তাত মৃতদেহ। খোলা রয়েছে ঘরে থাকা আলমারি।

আরও পড়ুন: গুরুপূর্ণিমা উপলক্ষ্যে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বুদ্ধের দেখানো পথে চলার উপদেশ মোদির

এই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে তদন্তে যায় বর্ধমান থানার পুলিশ। সিআইডিও তদন্তে খুব শীঘ্র খুনি ধরা পড়বে বলে আশাবাদি মৃতের পরিবার।

Related Articles

Back to top button
Close