fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

বিজেপির উত্তরকন্যা অভিযানে মিছিলে ‘শটগান’ চালানোর তদন্তভার যাচ্ছে সিআইডি’র হাতে

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়,‌ কলকাতা: পুলিশের চালানো গুলিতেই মৃত্যু হয়েছিল বিজেপি কর্মী উলেন রায় এমন দাবি প্রথম থেকেই করে আসছেন বিজেপি নেতৃত্ব। যদিও মৃত ওই বিজেপি কর্মীর ময়নাতদন্তের রিপোর্টে উল্লেখ করে তৃণমূলের দাবি, গুলি চালানো হয়েছিল শটগান থেকে এবং রাজ্য পুলিশ কখনও শটগান চালায় না। মিছিলে বহিরাগতরাই এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। এবার এই ঘটনার গভীরে তদন্ত করতে সিআইডিকে তদন্তভার দিল রাজ্য প্রশাসন।
 মঙ্গলবার রাজ্য পুলিশ ট্যুইট করে জানিয়েছে, ওই বিজেপি কর্মীর মৃত্যু হয়েছে শটগানের গুলিতে এবং সেই শটগান ব্যবহার করেনি পুলিশ। কারণ পুলিশ কখনও শটগান ব্যবহার করে না। তাহলে মিছিলের শটগান চালালো কে? মঙ্গলবার তৃণমূল ভবনে পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় সাংবাদিক বৈঠক করেও জানিয়েছেন, ‘ পুলিশের গুলিতে বিজেপি কর্মীর মৃত্যু হয়নি। পুলিশ শটগান থেকে গুলি চালায় না। যারা নিজেরা নিজেদের পার্টির লোককে খুন করে রাজনীতি করে, তাদের নিন্দা জানানোর ভাষা নেই। পুলিশের গুলিতে উলেন রায় খুন হয়েছে বলে দাবি করে নতুন ইস্যু তৈরি করার চেষ্টা করছে বিজেপি।’
তিনি আরও বলেন, দল ও সরকারের তরফ থেকে খুব বিস্তারিতভাবে অনুসন্ধান করেও দেখা গিয়েছে, পুলিশের গুলিতে ওই ব্যক্তি মারা যাননি।ময়নাতদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী শটগানের গুলির আঘাতে জখম হয়ে মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যক্তির। আর পুলিশ শটগান ব্যবহার করে না। এর আগে বিজেপির নবান্ন অভিযান শটগান নিয়ে ধরা পড়েছিল এক বিজেপি কর্মী। সোমবার বিজেপি–র উত্তরকন্যা অভিযানে ওই ব্যক্তি ছাড়াও আরও কয়েকজনের কাছে শটগান ছিল। পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে আতঙ্ক তৈরি করা উদ্দেশ্য ছিল। নিহত ব্যক্তির কাছেও শটগান ছিল। পুলিশ হাজার প্ররোচনা সত্ত্বেও  লাঠি চালিয়েছে কিন্তু গুলি চালায় নি।
 পুলিশ জানিয়েছে, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে অসদুদ্দেশ্য নিয়েই এই শটগান ব্যবহার করা হয়েছিল। বিক্ষোভ কর্মসূচিতে মৃতের কাছে দাঁড়িয়ে থাকা কোনো ব্যক্তির শটগান থেকে চালানো গুলির প্যালেট আঘাত পেয়েছিল নিহত ব্যক্তি। রাজ্য প্রশাসনের দাবি, রাজনৈতিক প্রতিবাদ কর্মসূচিতে সশস্ত্র ব্যক্তিদের আনা এবং তাদের গুলি চালাতে উস্কে দেওয়া শোনা যায় না। পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি কে তদন্ত করতে বলা হয়েছে। যারা জঘন্য অপরাধের পরিকল্পনা এবং সেটা কার্যকর করেছিল তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
প্রসঙ্গত, সোমবার দুপুরে উত্তরবঙ্গে রাজ্যের মুখ্য প্রশাসনিক ভবন ‘উত্তরকন্যা’ অভিযানে নামে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় শিলিগুড়ির তিনবাত্তি মোড়। আচমকা ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করেন যুব মোর্চার কর্মীরা। পুলিশ-বিজেপি কর্মী ধস্তাধস্তিতে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হয় এলাকায়। মিছিল ছত্রভঙ্গ করতে জলকামান, কাঁদানে গ্যাস, লাঠিচার্জ করে পুলিশের। পাল্টা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছোড়ে বিজেপি কর্মীরা। আর সেই সময় আচমকা গুলি লেগে মৃত্যু হয় বিজেপি কর্মী উলেন রায়ের।

Related Articles

Back to top button
Close