fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দলীয় কার্যালয় উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ১

তারক হরি, পশ্চিম মেদিনীপুর: দলীয় কার্যালয় উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষের ঘটনা ঘিরে উত্তপ্ত খড়্গপুরের সাদাতপুর। আহত ১। আশঙ্কাজনক অবস্থায় শেখ ফিরোজ নামে ওই ব্যক্তিকে খড়্গপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
মূলত আগামী ৭ তারিখ মমতা ব্যানার্জির সভাকে সামনে রেখেই বৃহস্পতিবার সকালে একটি মিছিল বের করে তৃণমূল শিবির। মিছিল শেষে তৃণমূলের ওই দলীয় কার্যালয় অফিসটি উদ্বোধন করেন ব্লক তৃণমূল সভাপতি অমর চক্রবর্তী ও পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মালা দোলই। তাঁরা সভাস্থল ছেড়ে বেরিয়ে যাবার পরেই সালাউদ্দিন মল্লিকের নেতৃত্বে তৃণমূলের অন্য এক গোষ্ঠীর লোকজন হাতে রড-লাঠি নিয়ে চড়াও হয় বলে অভিযোগ করেন তৃণমূলেরই আরেক নেতা শেখ ফিরোজ। মমতা ব্যানার্জির পোস্টারও ছিঁড়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি ।

তৃণমূল নেতা শেখ ফিরোজ বলেন “আমরা সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস আজ একটি পার্টি অফিস উদ্বোধন করলাম। আমাদের পার্টি অফিসে সালাউদ্দিন মল্লিকের নেতৃত্বে কিছু সমাজ বিরোধী ছেলেরা ঢুকে রড-লাঠি নিয়ে আমাদের কর্মীদের ছেলেদের ওপর মারধর শুরু করে। এই ঘটনায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় আমাদের একজন কর্মীর মাথা ফেটে যায়, উনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। পুরো বিষয়টি দলের ঊর্ধ্বতন নেতৃত্বদের জানিয়েছি, উনারা যা ব্যবস্থা নেওয়ার নেবেন।”

তৃণমূল নেতা সালাউদ্দিন মল্লিক

অন্যদিকে অভিযুক্ত সালাউদ্দিন মল্লিক বলেন ” আমি দীর্ঘদিন ধরে এই দল করে আসছি। গরীব মানুষের দোকানকে দখল করে জোরপূর্বক এই পার্টি অফিসটি তৈরি করা হয়েছে। তাঁর কাছে চাবি চেয়ে নিয়ে জোরজবরদোস্তি তার দোকান দখল করে পার্টি অফিস কেন জানতে চাওয়া হয় সেই নিয়ে বচসা শুরু হয়। এবং আমাদেরই ছেলেগুলোকে মারধর করা হয় আমি সেই সময়ে ওখানে উপস্থিত ছিলাম না, এবং এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত নই। একজন গরীব মানুষের দোকান দখল করে পার্টি অফিস করার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।”


তৃণমূলের এই পার্টি অফিস উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে শাসক শ্রেণির দুই গোষ্ঠীর দ্বন্দ্ব চরমে ওঠায় ঘটনাস্থলে আসে খড়্গপুর থানার পুলিশ। পরে দুই পক্ষকে বুঝিয়ে পরিস্থিতি আয়ত্ত্বে আনে পুলিশ’।

Related Articles

Back to top button
Close