fbpx
কলকাতাহেডলাইন

বন্ধ হরি সাহার হাট, পুজোর আগে বাজার খোলার আবেদন মুখ্যমন্ত্রীকে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সম্প্রতি আনলক পর্বে শহরের বিভিন্ন মার্কেট ও বাজার খুলে গেলেও এখনও খোলেনি উত্তর কলকাতার খ্যতিনামা হরি সাহার হাট। তাই পুজোর আগে ওই হাট খোলার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে আবেদন জানিয়েছেন হাটের পাইকারি খুচরো ব্যবসায়ীরা। কলকাতার অন্যতম খুচরো পাইকারি ব্যবসার হাট হরি সাহার হাট।

করোনা আবহ শুরু হতেই শহরের অন্যান্য বাজার হাটের মতই মার্চ থেকে বন্ধ হয়ে ছিল উত্তর কলকাতার হরি সাহার হাট। কিন্তু ধীরে ধীরে লকডাউন শিথিল হলে হাতিবাগান, নিউমার্কেট, পোস্তা, কোলে মার্কেটের মত বড় বড় বাজার খুললেও এখনও ঝাঁপ বন্ধ এই হাটের। প্রশাসনের তরফে হাট খোলার কোনও ইঙ্গিতই মেলেনি এখনও। এর ফলে কার্যত অনাহারে দিন কাটাচ্ছে হাটের এক থেকে দু লাখ ব্যবসায়ীর পরিবার।

ব্যবসায়ীদের অভিযোগ প্রশাসনকে এই বিষয়ে বারংবার বলেও কোনও সদুত্তর মেলেনি তাঁদের তরফে। পোশাক ব্যবসায়ী সংগঠনের সম্পাদক কালা চাঁদ রায় জানান, থানা, ডিসি নর্থ, কুটির শিল্প মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, বর্তমানে পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য তথা ওই এলাকার বিদায়ী কাউন্সিলর অতীন ঘোষের কাছে গেলেও কিছুই লাভ হয় নি। তাঁর আরও অভিযোগ, “সমস্ত হাট,শপিং মল খুলছে কিন্তু আমাদের এই হাট খুলছেনা। স্বপন দেবনাথ পুর প্রশাসক ফিরহাদ হাকিমকেও অনুরোধ করেছেন হাট খোলার জন্য। এই হাট বন্ধ থাকায় এখন লক্ষ লক্ষ লোক আমরা বেকার হয়ে গেছি।”

করোনা পরিস্থিতির আগে রবি, সোম এবং বুধবার বসতো এই হাট। কিন্তু লক ডাউন শুরু হতেই দীর্ঘ পাঁচ মাস টাকা বন্ধ হয়ে পরে আছে হাটের দোকান পাট। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ব্যবসায়ীদের আবেদন দুর্গাপুজোর আগে যেন হাট খোলার অনুমতি দেওয়া হয়। অপর এক ব্যবসায়ী তাপস সাহা জানান, “ডিসি নর্থ জানিয়েছিলেন স্বাস্থ্য বিধি মেনে দোকান খুলতে হবে। সেই মত আমরা জোড় বিজোড় নিয়ম মেনে দোকান খোলা, মাস্ক স্যানিটাইজার ব্যবহার,দূরত্ব বজায় রাখা, এমনকি বাজারের পাঁচটা গেটের মধ্যে একটা গেট খোলা রাখা সব রকম শর্ত মেনে নিয়ে হাট খুলতে ছেয়েছিলাম। কিন্তু তা সত্ত্বেও বাজার খোলার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আমাদের কাতর আবেদন পুজোর আগে যেন হাট খোলার অনুমতি দেন তিনি”।

Related Articles

Back to top button
Close