fbpx
কলকাতাবিনোদনহেডলাইন

প্রয়াত বিখ্যাত রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী পূর্বা দাম, শোকবার্তা পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  অসংখ্য শ্রোতাদের শোকস্তব্ধ করে না-ফেরার দেশে চলে গেলেন রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী পূর্বা দাম। শনিবার সকালে দক্ষিণ কলকাতার বাড়িতে ঘুমের মধ্যেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন ৮৬ বছর বয়সী পূর্বা দাম।  পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, তিনি অসুস্থ ছিলেন, চিকিত্‍সাও চলছিল। প্রয়াত রবীন্দ্রসংগীত শিল্পীর প্রয়াণে শোকবার্তা পাঠিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।পরিবার সূত্রের খবর, বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী পূর্বা দাম।

পূর্বা দামের জন্ম ১৯৩৫ সালে, কলকাতায়। ৮০-র দশকে অন্যতম প্রধান রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছিলেন পূর্বা দাম। বারো বছর বয়স থেকে সুচিত্রা মিত্রের কাছে সঙ্গীত শিক্ষা শুরু হয় শিল্পীর। সুচিত্রা মিত্রের গানের ধারাকে আজীবন অনুসরণ করে এসেছেন তিনি। সুচিত্রা মিত্রের প্রিয় ছাত্রী ছিলেন পূর্বা দাম। কাকতালীয়ভাবে সুচিত্রা মিত্রের জন্মদিনেই (১৯ সেপ্টেম্বর) প্রয়াত হলেন পূর্বা দাম। ২০১৩ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকার ‘সংগীত সম্মানে’ সম্মানিত করে জনপ্রিয় এই রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পীকে। ‘তোমার তরী বাওয়া’, ‘সীমার মাঝে অসীম তুমি’, ‘মধুর রূপে বিরাজো’-সহ রবির গান নিয়ে একাধিক জনপ্রিয় অ্যালব্যাম রেকর্ড করেছেন পূর্বা দাম।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর হৃদ্যতার সম্পর্ক ছিল শিল্পীর। পূর্বা দামের প্রয়াণে শোকপ্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শোকবার্তায় তিনি জানিয়েছেন, ‘তাঁর সঙ্গে আমার বিশেষ হৃদ্যতার সম্পর্ক ছিল। তাঁর মৃত্যুতে রবীন্দ্রসঙ্গীত জগতে এক শূন্যতার সৃষ্টি হল। আমি পূর্বা দামের পরিবার-পরিজন ও অনুরাগীদের আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি’।

আরও পড়ুন: বিশ্ব বাঁশ সংরক্ষণ দিবস উপলক্ষে বাঁশ দিয়ে তৈরি বিস্কুটের উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব

পূর্বা দাম মনে করতেন, সুচিত্রা মিত্রের হাত ধরেই তাঁর রবীন্দ্রসংগীতের পথ চলা। তিনি না থাকলে, গায়িকা হিসেবে এতটা প্রতিষ্ঠিত হতে পারতেন না। তাঁকেও সুচিত্রা মিত্রর ‘ভাবশিষ্যা’ বলতেন অনেকেই। তাই আজীবন কবিগুরুর পাশাপাশি শিক্ষয়িত্রী সুচিত্রা মিত্রকে অনন্ত শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে গিয়েছেন গানের মধ্যে দিয়ে।

২০১৩ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকার ‘সংগীত সম্মানে’ সম্মানিত করে জনপ্রিয় এই রবীন্দ্রসংগীত শিল্পীকে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর হৃদ্যতার সম্পর্ক ছিল। দু, একবার মমতার অনুরোধ মেনে রাজ্য সরকারের কয়েকটি অনুষ্ঠানেও গান শুনিয়েছিলেন প্রবীণ শিল্পী। অসুস্থতার সময়ে তাঁর খোঁজখবর রাখতেন মুখ্যমন্ত্রী। তাই শনিবার সকালে তাঁর মৃত্যুর খবর পেয়ে কিছুটা শোকস্তব্ধ হয়ে পড়েন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরের তরফে শোকবার্তা পাঠানো হয়।

Related Articles

Back to top button
Close