fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

১০০ শতাংশ পূনর্বাসন দিয়েই হবে কয়লাখনির কাজ, ঘোষণা রাজীব সিনহার

প্রদীপ্ত দত্ত, সিউড়ি: ডেউচা-পাঁচামি খনি এলাকায় কয়লা উত্তোলনের কাজ নতুন করে শুরু করার প্রক্রিয়া শুরু করল রাজ্য সরকার। লক ডাউনের কারণে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ ছিল আলোচনা প্ৰক্রিয়া।

 

 

বৃহস্পতিবার রাজ্য সরকারের চীফ সেক্রেটারি রাজীব সিনহা সিউড়িতে জেলার উচ্চ আধিকারিকদের সঙ্গে প্রথমে আলোচনায় বসেন । এরপর ডেউচা গৌরাঙ্গিনী উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি আলোচনায় স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলেন ।

 

 

রাজীব সিনহা জানান , ” ডেউচা- পাঁচামি সরকারের বড় প্রজেক্ট। স্থানীয় মানুষ কি পাবেন , সরকার কেন এটা করছে তা স্পষ্ট ধারণা দেওয়ার জন্য আমরা এখানে এসেছি । ৪০ জন স্থানীয় মানুষ এখানে এসেছিলেন। সরকার নিজেই এখানে মাইনিংয়ের কাজ করবে । কোন প্রাইভেট সংস্থা এর সঙ্গে জড়িত নয় । সরকার কোনও প্রফিট মোটিভ নিয়ে এখানে আসেনি। মাটির তলায় যে অপরিসীম সম্পদ আছে তা মানুষের স্বার্থে কীভাবে কাজে লাগানো যেতে পারে সেই ব্যাপারটা স্পষ্ট করার জন্য আমরা এসেছি ।রাজ্যের থার্মাল পাওয়ার স্টেশনে ব্যবহার করা হবে এখানকার উত্তোলিত কয়লা । ১০০ শতাংশ পুনর্বাসন দিয়েই আমরা কাজটা শুরু করবো। ৩৫০০মাইল একর জুড়ে এই কয়লাখনি আছে । ধাপে ধাপে এর কাজ হবে যাতে কোন মানুষের স্বার্থ ক্ষতি না হয় । ”

কয়লা পরিমাণ কত আছে ,কোন জায়গায় আছে তার সন্ধানের কাজ দ্রুত শুরু হবে , তবে মাইনিংয়ের কাজ শুরু হতে এক থেকে ১.৫ বছর লাগবে বলে রাজীব সিনহা জানান।

 

 

 

যদিও কৃষিজমি রক্ষা কমিটির সম্পাদক জয়দেব মজুমদার দার জানান , “তাদের এই গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে ডাকা হয়নি। তবে আমাদের সরকারের প্রতি আস্থা আছে । পুনর্বাসনের সঙ্গে  শিল্প হলে এই এলাকার মানুষের উপকার হবে।” দীর্ঘ জটিলতার কারণে বন্ধ ছিল এই কয়লাখনি কাজ। ২১০ কোটি ২০ লক্ষ টন মজুতের এই কয়লা ভান্ডারের ২১০ কোটি ২০ লক্ষ টন মজুতের এই কয়লা ভান্ডারের কাজ কত দ্রুত শুরু হবে তাই এখন দেখার।

Related Articles

Back to top button
Close