fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

কয়লায় বাণিজ্যিক সংস্কার, লাভের মুখ দেখবে রাজ্য সরকার গুলি: মোদি

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: সমস্যার মধ্যেই সুযোগকে কাজে লাগাতে হবে। করোনার আবহে দেশবাসীর উদেশ্যে বললেন মোদি। আত্মনির্ভর ভারতই আমাদের লক্ষ্য। আমদানি কমিয়ে রফতানির পরিমান বাড়াতে হবে। আমদানির জিনিস দেশেই তৈরি হবে। তার জেরে দেশে বাড়বে কর্মসংস্থানের সুযোগ। পরে রফতানিতে সেরা হবে ভারত।পরিবেশের কথা মাথায় রেখেই কয়লা ক্ষেত্রে সংস্কার। কয়লায় বাণিজ্যিক সংস্কারের পথে বড় পদক্ষেপ কেন্দ্রের। এই সংস্কারের ফলে রাজ্য সরকার গুলির লাভ হবে। , ‘করোনা সংক্রমণ আমাদের আত্মনির্ভর হতে শিখিয়েছে। আর এই আত্মনির্ভর হওয়ার প্রথম ধাপ হল বিদেশি আমদানির পরিমাণ কমানো। সেই লক্ষ্যেই এই সিদ্ধান্ত বড় পদক্ষেপ হতে চলেছে।

প্রধানমন্ত্রী এদিন বলেন, এই বেসরকারিকরণের ফলে ভারতের জ্বালানি ক্ষেত্রে একটি বড় বাজার তৈরি করা সম্ভব হল। এবার থেকে বিদেশেও আমাদের জ্বালানির চাহিদা বাড়বে। এছাড়া এই খনিগুলিতে কাজের জন্য বেকারত্বের সমস্যাও বেশ কিছুটা কমবে বলে আশা প্রধানমন্ত্রীর। কয়লাখনি গুলিতে এই নিলামের ফলে আগামী ৫ থেকে ৭ বছরের মধ্যে অন্তত ৩৩ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ হবে বলে আশা প্রধানমন্ত্রীর। এছাড়া এই খনিগুলি থেকে পরবর্তীকালে সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলি বছরে ২০ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আদায় করতে পারবে বলে তাঁর বিশ্বাস।

আরও পড়ুন: রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য ভারত, ধন্যবাদজ্ঞাপন মোদির

আগামী ২০ জুন ‘গরিব কল্যাণ রোজগার অভিযান’ প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কেন্দ্রের এই নয়া উদ্য়োগ ভারতের গ্রামাঞ্চলের বেকার তরুণ-তরুণী বিশেষত পরিয়ায়ী শ্রমিকদের কর্মসংস্থানের পক্ষে সহায়ক হবে বলে মনে করছে প্রধানমন্ত্রীর দফতর।করেনা মোকাবিলায় একটানা লকডাউনের জেরে দেশের অর্থব্যবস্থা ধুঁকছে। ইতিমধ্যেই ভিনরাজ্য থেকে লক্ষ-লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিক নিজেদের রাজ্যে ফিরে এসেছেন। তবে তাঁদের অনেকেই নিজেদের রাজ্যে কাজের সুযোগ পাচ্ছেন না। সংসারের খরচ চালাতে দিশেহারা দশা বহু পরিযায়ী শ্রমিকের। অনেকেই করোনা আতঙ্ক নিয়েই ফের পরিযায়ী শ্রমিকের কাজে যেতেও তত্‍পরতা নিচ্ছেন।

এই পরিস্থিতিতে ‘গরিব কল্যাণ রোজগার অভিযান’ উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। আগামী ২০ জুন কেন্দ্রের এই নয়া উদ্যোগের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এই প্রকল্পের মাধ্যমে লাভবান হবেন পরিযায়ী শ্রমিকরাও। দেশের ৬টি রাজ্য়ের ১১৬টি জেলায় ১২৫ দিনের এই ক্যাম্পেন চলবে।

Related Articles

Back to top button
Close