fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পূর্ণ লকডাউনের দাবীতে রায়গঞ্জে পথ অবরোধ ব্যবসায়ীদের

নিজস্ব সংবাদদাতা, রায়গঞ্জ: করোনা সংক্রমনে লাগাম টানতে আগস্ট মাসে সাতদিন রাজ্যে পূর্ণ লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। এরই মধ্যে পরিস্থিতি বিবেচনা করে উত্তর দিনাজপুর জেলার কিছু অংশে স্থানীয় ভাবে ৬ ও ৭ -ই আগস্ট লকডাউনের ঘোষণা করা হয়েছিল।

কিন্তু এই লকডাউন কার্যত অমান্য করা হল জেলার বিভিন্ন প্রান্তে। সরকারী নির্দেশ উপেক্ষা করে খোলা রইলো দোকানপাট, রাস্তায় দেখা গেল মানুষের ঢল। অন্যদিকে শুধুমাত্র কিছু ব্যবসায়ীর দোকান বন্ধ করে লকডাউন সফল করার চেষ্টার বিরুদ্ধে শুক্রবার রায়গঞ্জের বিবিডি মোড়ে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালো স্থানীয় ব্যবসায়ী সংগঠনের সদস্যরা। এই গোটা কর্মকান্ডের নেতৃত্ব দেন রায়গঞ্জ মার্চেন্টস এ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক অতনু বন্ধু লাহিড়ী। তিনি বলেন, “শুধুমাত্র কিছু ব্যবসায়ীদের দোকান বন্ধ করা হচ্ছে। করোনায় লাগাম টানতে পূর্ণ লকডাউন প্রয়োজন। কিন্তু সেই নিয়ম মানা হচ্ছে না। রাস্তাঘাটে ভীড় বাড়ছে। গাড়িঘোড়া চলছে। শুধুমাত্র ব্যবসায়ী দের দোকান বন্ধ রেখে মূল উদ্দেশ্য সাধিত হবে না”।

উল্লেখ্য প্রশাসনিক তৎপরতায় রাজ্য সরকারের নির্ধারিত লকডাউন সাধারণত সর্বাত্মক চেহারা নেয়। রাস্তাঘাট থাকে জনশূন্য। তবে স্থানীয় স্তরে ডাকা লকডাউনে এর বিপরীত ছবি ফুটে উঠছে সর্বত্র।

চলতি সপ্তাহে ৫ ও ৮-ই আগস্ট রাজ্য সরকারের লকডাউন। এর পাশাপাশি স্থানীয় স্তরে রায়গঞ্জ, ইসলামপুর, করনদিঘী ও ইটাহারে লকডাউনের ঘোষনা করা হয়। নির্দেশে বলা হয় ৬ ও ৭-ই আগস্ট দুপুর দুটো পর্যন্ত অত্যাবশকীয় পণ্যসামগ্রী ছাড়া কোনো কিছু খোলা থাকবে না। দুপুর দুটোর পর থেকে ওষুধের দোকান ছাড়া সব বন্ধ থাকবে। কিন্তু বাস্তবক্ষেত্রে দেখা গেলো কোনো নিয়মই মানা হলো না। রায়গঞ্জ সহ বিভিন্ন জায়গায় খোলা রইলো প্রায় সব দোকান। রাস্তাঘাটে মানুষের ভীড়। মানা হলো না কোন স্বাস্থ্য বিধিও। কিছুক্ষেত্রে জোড় করে কিছু দোকান বন্ধ করে দেয় পুলিশ।

উল্লেখ্য, করোনার আক্রমণে ইতিমধ্যেই রায়গঞ্জে প্রাণহানি হয়েছে বেশ কয়েক জনের। আক্রান্ত কম পক্ষে আড়াইশোর কাছাকাছি বলে প্রশাসন সূত্রে এমনটাই জানা গিয়ছে।

Related Articles

Back to top button
Close