fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

শত্রু কে গুলিয়ে ফেললেন, চিনা প্রেসিডেন্টের বদলে কিম জং উনের কুশপুতুল পোড়ালেন বিজেপি কর্মীরা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: সোমবার লাদাখে ভারতীয় সেনার উপর বর্বরোচিত হামলা করে চিনের সেনারা। এক কর্নেল–সহ ২০ জওয়ানের মৃত্যুতে ফুঁসছে গোটা দেশ। দেশজুড়ে চিনা পণ্য বয়কটের ডাক উঠেছে। শত্রু কে? ঠিকমত বুঝতে পারেননি বিজেপি কর্মীরা। ফলে যা হওয়ার তাই। প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে আসানসোলের গেরুয়া শিবিরের সদস্যদের রোষ আছড়ে পড়ল অন্যের উপর। লাদাখে চিন সেনার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং নয়, বিজেপি কর্মীরা পোড়ালেন উত্তর কোরিয়ার একনায়ক কিম জং উনের কুশপুতুল। তাঁদের এই প্রতিবাদ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। শুরু হয়ে গিয়েছে কটাক্ষ, সমালোচনাও।

ভাইরাল ওই ভিডিওতে নিজেকে আসানসোল বিজেপির নেতা পরিচয় দেওয়া এক ব্যক্তির বক্তব্য, চিনের প্রেসিডেন্ট কিম জংয়ের কুশপুতুল পোড়ানোর কর্মসূচি পালন করছেন তাঁরা। কিন্তু কেন? দেখা গেল, বিজেপি কর্মীরা কিম জং উনকেই চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিংয়ের সাথে গুলিয়ে ফেলেছেন। জিজ্ঞাসা করা হলে, তাঁদের সাফ জবাব, ‘আমরা কিম জং উনের কুশপুতুল পুড়িয়ে প্রতিবাদ জানাব।’

আরও পড়ুন: করোনার বাড়বাড়ন্ত, ফের ১২ দিনের লকডাউনের পথে হাঁটতে চলেছে চেন্নাই

উল্লেখ্য, কিম জং উন উত্তর কোরিয়ার প্রশাসক, চিনের নয়। এই প্রাথমিক তথ্য বোধহয় ছিল না আসানসোলের বিজেপি কর্মীদের কাছে। সে কারণেই এমন বিভ্রাট, যার হাত ধরেই প্রতিবাদ কর্মসূচি একেবারে হাসির খোরাক হয়ে দাঁড়াল সোশ্যাল মিডিয়ায়। টুইটারে ট্রেন্ডিং কিম জং উন। বিজেপি কর্মীদের এই কাজের জন্য অনেকেই টুইটারে তাঁদের নিয়ে কটাক্ষ শুরু করেছেন। বলছেন, আসল শত্রুকে চিনতে না পারলে, বিপদ আরও বাড়বে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গালওয়ান উপত্যকায় বিনা প্ররোচনায় চিন সেনার হামলায় শহিদ হতে হয়েছে ২০ ভারতীয় সেনাকে। সোমবার এই ঘটনার প্রতিবাদে চিনা দ্রব্য বয়কটের ডাক দিয়েছেন দেশবাসী। বিভিন্ন জায়গায় চিনের বিরুদ্ধে চলেছে প্রতিবাদ বিক্ষোভ কর্মসূচি। সেভাবেই বৃহস্পতিবার আসানসোলের বিজেপি কর্মীরা চিনা প্রেসিডেন্টের কুশপুতুল দাহ করার কর্মসূচি গ্রহণ করেছিল। কিন্তু কর্মসূচি পালন করতে নেমে দেখা গেল অন্য ছবি। চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং নয়, বিজেপি কর্মীরা পুড়িয়ে ফেলছেন কিম জং উনের কুশপুতুল। সঙ্গে স্লোগান, বয়কট চিন।

Related Articles

Back to top button
Close