fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

হুগলী জেলাজুড়ে কংগ্রেসের ডেপুটেশন

পার্থ সামন্ত, তারকেশ্বর: রাজ্য বিধানসভার প্রধান বিরোধী দল, কংগ্রেস ১১ জুন বৃহস্পতিবার রাজ্যের বিডিও অফিস গুলিতে ডেপুটেশন দিল। সাড়া রাজ্যের মতো হুগলী জেলা জুড়েও চলে এই ডেপুটেশন কর্মসূচি।

 

 

পোলবা দাদপুর ব্লক অফিসে ডেপুটেশন দেন প্রতিম মিত্র, শ্যামলী বাড়ুই, ইয়াসিন আলি সহ অন্যান্য নেতা কর্মীরা। আরামবাগে ডেপুটেশনে উপস্থিত ছিলেন প্রবীর ঘোষ, কাজল মুন্সী, শুকুর আলি সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। পুরশুরাতে ব্লক কংগ্রেস সভাপতি বিশ্বজিৎ দাঁ ও হাবিবুর রহমান সহ বেশ কয়েক জন মিলে এই ডেপুটেশন দিয়েছেন। সিঙ্গুর ব্লক অফিসে ডেপুটেশন দেন নিতাই চক্রবর্তী, বরুণ মালিক, প্রলয় চক্রবর্তী সহ স্থানীয় নেতা কর্মীরা।

 

 

 

তারকেশ্বরে শৈল ঘোষ, বুদ্ধদেব দাস সহ অন্যান্য নেতা কর্মীরা ডেপুটেশনে ছিলেন। খানাকুল ২ এর ডেপুটেশনে উপস্থিত ছিলেন নাজির চৌধুরী, ওসমান গনি, দিগন্ত মন্ডল সহ অন্যান্য নেতা কর্মীরা। শঙ্কর দাস ও জগন্নাথ সাঁতরার নেতৃত্বে ডেপুটেশন হয় হরিপাল ব্লকে। খানাকুল ১ এ ডেপুটেশন দেন প্রদীপ কর ও আবু তাহের জমাদার সহ বেশ কয়েকজন। চুঁচুড়া মগরা ব্লকে ডেপুটেশন দেন স্বরুপ সেনগুপ্ত, শ্রেয়া ঘোষ, সমীর দে সহ অন্যান্য নেতা কর্মীরা।

 

 

 

হুগলী জেলা কংগ্রেস সহ সভাপতি প্রতুল চন্দ্র সাহা বলাগড় ব্লকে ডেপুটেশন দিতে এসে জানান জেলার হুগলী, ধনিয়াখালী, পাণ্ডুয়া, আরামবাগ, সিঙ্গুর, পোলবা দাদপুর, হরিপাল, খানাকুল ১, চুঁচুড়া-মগরা, বলাগড়, জাঙ্গিপাড়া, খানাকুল ২, চন্ডিতলা ১, তারকেশ্বর, পুরশুরা, গোঘাট ২, চন্ডিতলা ২, শ্রীরামপুর উত্তরপাড়া ও গোঘাট ১ ব্লকে চলছে এই ডেপুটেশন কর্মসূচি। জেলা মহিলা কংগ্রেস সভানেত্রী মিঠু নাগ তাঁর দলীয় সহকর্মীদের নিয়ে ডানকুনি তে ডেপুটেশন দেন।

 

 

জেলা যুব কংগ্রেস সহ সভাপতি শ্যামল মিশ্র চুঁচুড়া ও চন্দননগর মহকুমা শাসকের দপ্তরে ডেপুটেশন দেন। তিনি বলেন ব্লকগুলির সঙ্গে সঙ্গে জেলার চারটি মহকুমা শাসকের দপ্তরেও ডেপুটেশন দেওয়া হয়েছে।জেলা কংগ্রেস সভাপতি সঞ্জয় চ্যাটার্জি বলেন ঘূর্ণিঝড় আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত সবার ত্রাণের দাবিতে এই কর্মসূচি। আমফানের পর এতো দিন হয়ে গেলেও এখনও সব জায়গায় পর্যাপ্ত পরিমাণে ত্রান দেওয়া হয়নি। কোন কোন জায়গায় ত্রান যায়নি জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন চুঁচুড়া, খানাকুল, পুরশুরা, আরামবাগ সহ বিভিন্ন জায়গায় এখন ন্যূনতম চাল, ডাল টুকুও দেওয়া হয়নি দুর্গতদের।

 

 

ডেপুটেশন প্রসঙ্গে এ আইসিসি-র সদস্য তথা হুগলী জেলার প্রবীণ কংগ্রেস নেতা প্রীতম ঘোষ বলেন ক্ষতিগ্রস্ত ও ক্ষুধার্থ মানুষের কোন দল হয়না। তাঁরা সবাই মানুষ, অথচ আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরিতে দলগত ব্যাপারটা অনেক বেশি হয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন ভালো সরকারের কাজ হচ্ছে দল মত নির্বিশেষে ক্ষতিগ্রস্ত ও ক্ষুধার্ত মানুষের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া। আর এই জিনিসটা হচ্ছে না বলেই আজ কংগ্রেসকে রাস্তায় নামতে হয়েছে বলে তিনি জানান। তিনি বলেন কংগ্রেস সরকারে না থাক দরকারে আছে ও থাকবে।

Related Articles

Back to top button
Close