fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

জেলায় কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা ৫ থেকে বেড়ে ১৯ , উদ্বেগ প্রশাসনের

প্রদীপ্ত দত্ত, সিউড়ি : বীরভূমে ক্রমাগত বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। ফলে বাড়ানো হচ্ছে কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা। প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণের অভাবে মাস্ক না পড়েই শহরের ব্যাস্ত এলাকাগুলোতে ঘুরে বেড়াচ্ছে সাধারণ মানুষ। ফলে এতদিনে যে সংখ্যাটা ছিল মাত্র পাঁচে তা গত কয়েকদিনে সেই সংখ্যাটা ১৯ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ।

 

 

জেলাজুড়ে শুরু হয়েছে আতঙ্ক । এতদিন পর্যন্ত জেলার সদর শহর তুলনামূলক নিরাপদে থাকলেও এবার সেখানেও এক মহিলার শরীরে করোনা পজিটিভ ধরা পড়ায় শহরের বাসিন্দাদের মধ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে । সিউড়ির ১ নম্বর ব্লকের কড়িধ্যা গ্ৰাম পঞ্চায়েতের বিবেকানন্দ পল্লীতে এক গৃহবধূ করোনা আক্রান্ত হলে প্রশাসনের তরফ থেকে দ্রুত ওই এলাকাকে কনটেনমেন্ট জোনে পরিণত করা হয়েছে । রামপুরহাট কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে ওই গৃহবধূকে। সেই সঙ্গে সংস্পর্শে আসা আরও ৩৭ জনকে প্রশাসনের তরফ থেকে সিউড়ি সদর হাসপাতালে কোভিড পরীক্ষা করানো হয় ।

 

 

মঙ্গলবার দুপুরে সিউড়ি সদর হাসপাতালে দুবরাজপুরের আরও একজনের করোনা পজিটিভ হওয়ার রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে ।
বীরভূম স্বাস্থ্য জেলার সিএম ওএইচ হিমাদ্রি আড়ি জানান , ” জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ায় কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। তবে দুঃশ্চিন্তার কিছু নেই জেলার কোভিড হাসপাতালে পর্যাপ্ত চিকিৎসার ব্যাবস্থা আছে। জেলায় ইতিমধ্যেই বিনাপয়সায় কোভিড ১৯ পরিক্ষার কাজ শুরু হয়েছে। তবে বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবিলায় সাধারণ মানুষকে আরও সচেতন হতে হবে ।”

 

যদিও শহরের ব্যাস্ততম এলাকাগুলোতে ঝুঁকি নিয়ে সাধারণ মানুষ মাস্ক না পড়েই ঘুরে বেড়াচ্ছে। অবশ্য জেলায় কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা বাড়তেই পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে গত কয়েকদিন ধরে জোরদার ধরপাকড় করতে দেখা যাচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close