fbpx
অসমহেডলাইন

লালা কাটলিছড়ায় র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্টে করোনা পজিটিভ ১৯

যুগশঙ্খ প্রতিবেদন, কাটলিছড়া: হাইলাকান্দি জেলাতেও প্রতিদিন ধাপে ধাপে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। শুক্রবার র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট পরীক্ষায় লালায় চারজন এবং কাটলিছড়ায় ১৫ জন কোভিড পজিটিভ ধরা পড়েছেন। এদিন লালা প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্দ্যোগে লালা বাস টার্মিনাসে ক্যাম্প করে সামাজিক স্তরের দোকানি, পথচারীদের করোনা পরীক্ষা করা হয়।

র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট পরীক্ষায় জলালপুর গ্রামের একজন এবং লালা শহরের এন এস রোডের একজনের কোভিড পজিটিভ ধরা পড়ে। তাদের মধ্যে একজনকে সাথে সাথেই আলগাপুর মডেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অন্যজনকে অলইছড়া মডেল হাইস্কুল কোভিড কেয়ার সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

অপরদিকে করোনা রোগীর সংস্পর্শে যাওয়া বেহুল গ্রামের জবা রুদ্রপাল (৩৭) এবং প্রকাশ রুদ্রপালের (১৪) এদিন কোভিড পজিটিভ ধরা পড়েছেন। তারা দু’জনেই কনটেক্ট ট্রেসিং এ কোভিড পজিটিভ হয়েছেন। তাদেরকে অলইছড়া মডেল হাইস্কুল কোভিড কেয়ার সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে শুক্রবার কাটলিছড়া প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্দ্যোগে বিভিন্ন এলাকায় আয়োজিত র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট পরীক্ষায় মোট পনের জন কোভিড পজিটিভ ধরা পড়েছে। কোন ধরনের ট্রেভেল হিস্ট্রি ছাড়াই ওই পনের জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

কাটলিছড়া এম ভি স্কুল রোডে ছয় জন, বটতলা এলাকার পাঁচ জন, আপিন এলাকার দুই জন এবং কারিছড়া এলাকার সাত জন রয়েছেন। এদিন কোভিড পজিটিভ আক্রান্তদের মধ্যে রংপুর দ্বিতীয় খন্ডের রূপক নাথ (৩৮), এম ভি স্কুল রোডের রাহুল রায় লেনের মিত্রা বনিক (৫৮), বৈশালি বনিক (২১), দ্বীগর আপিনের অসিম রক্ষিত (৩৫) রয়েছেন।

কাটলিছড়ায় ট্রাভেল হিস্ট্রি ছাড়াই কাটলিছড়া থানার পুলিশ কর্মী সহ তার পরিবারের পাঁচ ৫ জন এবং এম ভি স্কুলের ডাক কর্মী সহ তার পরিবারে ছয় ৬জন, আপিন গ্রান্টে এক জন, দাড়িয়ারঘাট গ্রামে ভিডিপি কর্মী, করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, তারা বিগত কয়েকদিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন। কাটলিছড়া হাসপাতালের চিকিৎসক দের পরামর্শে শুক্রবার তাদের র‍্যাপিড এন্টিজেন টেস্ট করা হয়। আর এতেই পজিটিভ ধরা পড়ে। কাটলিছড়া থানায় পুলিশ কর্মী আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দশজন হল।

দ্বিগর আপিনের বাসিন্দা পুলিশ কর্মী অসীম রক্ষিত, তার স্ত্রী মুন্নী, শিশু কন্যা আরুশী, বোন পিংকি আর পরিচারিকা পুজা দাস কোভিড পজিটিভ ধরা পড়েছেন। একইভাবে এমভিস্কুল রোডের ডাক কর্মী প্রসেঞ্জিত বনিক, তার মা মিত্রা, স্ত্রী বৈশালী এবং তার দুজন কাকু ও কাকীমনি পজিটিভ ধরা পড়েছেন বলে জানা গেছে। আপিন গ্রান্টের বাসিন্দা অতনু শর্মাকে শিলচর মেডিকেল কলেজ কোবিড ওয়ার্ডে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এদিকে আক্রান্ত এলাকায় জেলা প্রশাসনের নির্দেশে এদিন বিকেলে কনটেনমেন্ট জোনের ভ্যানার লাগিয়ে দিয়েছেন পাটোয়ারিরা।

Related Articles

Back to top button
Close