fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা! বেলেঘাটা আইডি’র পরিষেবাকে দরাজ সার্টিফিকেট কেন্দ্রীয় পরিদর্শক দলের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কিছুদিন আগে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল-সহ শহর ও রাজ্যের বেশ কিছু হাসপাতাল ঘুরে ক্রটি উল্লেখ করে মুখ্যসচিবকে পত্রবাণে বিদ্ধ করেছিলেন ডাঃ অপূর্ব চন্দ্রের নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। এবার দেশের ২০ টি জায়গার মত কলকাতাতেও স্বাস্থ্য পরিকাঠামো খতিয়ে দেখতে এসেছেন কেন্দ্রীয় পরিদর্শক দলের সদস্যরা। এবার প্রথম দিনই বেলেঘাটা আইডি হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে হাসপাতালের ভিজিটার্স বুকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ব্যবহার এবং পরিষেবার মান নিয়ে উচ্ছ্বসিত মন্তব্য লেখেন সদস্যরা।

প্রথম দফায় করোনা নিয়ন্ত্রণ পরিস্থিতি দেখতে দেখতে রাজ্যে আসা অপূর্ব চন্দ্রের নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় দল আইডির দোরগোড়ায় পৌঁছেও ভিতরে যাননি। বুধবার দুপুর একটা নাগাদ আচমকাই হাসপাতালে উপস্থিত হন কেন্দ্রীয় পরিদর্শক দলের প্রতিনিধিরা। এই দলের কেন্দ্রীয় দলের দুই সদস্য অর্থাৎ অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব হাইজিন অ্যান্ড পাবলিক হেলথের দুই চিকিৎসক অপরাজিতা দাশগুপ্ত ও লীনা বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাজ্যের করোনা নিয়ন্ত্রণ মূল্যায়নের ভার দেওয়া হয়েছিল। এ দিন হাসপাতাল পরিদর্শনের পর আইডি হাসপাতালের ভিজিটর্স বুকে তাঁরা লেখেন, “পরিষেবা দারুণ। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে চাওয়া মাত্র সব তথ্য তাঁরা স্পষ্টভাবে তুলে ধরেছেন। রোগী পরিষেবার মানও যথেষ্ট উন্নত।”

বেলেঘাটা আইডি সূত্রে জানা গিয়েছে, হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা জন্য এবং তাঁদের পরিবারের কথা ভেবে সকলের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে হাসপাতালের তরফে। এদিন পরিদর্শনের সময় একথা জানার পরে হাসপাতালের এই সিদ্ধান্তকে ব্যাতিক্রমী ভাবনা বলে ব্যাখ্যা করেছেন প্রতিনিধি দলের সদস্যরা । পাশাপাশি, মানবতার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে যেভাবে আইডি’র সকলে মিলে কাজ করে চলেছেন, তার প্রশংসা করে ঠিক একইভাবে আগামীতে কাজ করে যাওয়ার অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন তাঁরা। একই সঙ্গে টালিগঞ্জ এমআর বাঙ্গুর হাসপাতালের পরিষেবার মানও আগের থেকে উন্নত হয়েছে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় পরিদর্শক দল।

রাজ্যে করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ার প্রথম দিন থেকে বেলেঘাটা আইডি’র চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীরা নিরলস পরিশ্রম করে চলেছেন । কোনও রোগীর সঙ্গে যেমন তাঁরা পরিষেবা নিয়ে আপস করেননি, ঠিক তেমনভাবেই স্বাস্থ্যকর্মীদের বিষয়েও যথেষ্ট যত্নশীল ছিলেন । তার ফল স্বরূপ কোনও স্বাস্থ্যকর্মী করোনা আক্রান্ত হননি। তবে চলতি সপ্তাহে হাসপাতালের এক নার্স করোনা আক্রান্ত হন । বর্তমানে তিনি আইসোলেশনে রয়েছেন ।

Related Articles

Back to top button
Close