fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

বাংলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২, আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫২২

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  রাজ্যে ক্রমেই উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মারণ করোনা। প্রতিদিন নতুন করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। রাজ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫২২। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৮ জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মঙ্গলবার এই তথ্য জানিয়েছেন মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা। করোনা মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় সবরকম পদক্ষেপ করছে রাজ্য সরকার। কিন্তু তবুও সংক্রমণ এড়ানো যাচ্ছে না। এখনও পর্যন্ত এরাজ্যে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২২ জনের। এমনই জানিয়েছেন মুখ্যসচিব। যদিও স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার সন্ধে পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে করোনভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৬৯৭।

মুখ্যসচিব জানান, এই সময়ের মধ্যে রাজ্যে ১,১০০-এর বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর ফলে রাজ্যে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩,২২৩-এ। মূলত, এই আক্রান্তের ঘটনাগুলি আসছে কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগণা, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগণা থেকে, জানান রাজীব সিনহা। পাশাপাশি, গতকালের হিসেব মতই রাজ্যে সংক্রমিত এলাকা রয়েছে। এখনও পর্যন্ত কলকাতায় ২২৭টি, উত্তর ২৪ পরগণায় ৫৭টি, হাওড়ায় ৫৬ টি ও পূর্ব মেদিনীপুর ৮টি এইরকম সংক্রমিত এলাকা রয়েছে।

সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে জেলায়-জেলায় লকডাউন সফল করতে তত্‍পরতা নিচ্ছেন পুলিশকর্মীরা। জরুরি কারণ ছাড়া রাস্তায় বেরোলেই ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ। একদিকে করোনা রুখতে যেমন চলছে সতর্কতামূলক প্রচার ঠিক তেমনি আইনি ব্যবস্থা নিয়েও সংক্রমণ প্রতিরোধ করার চেষ্টা চালাচ্ছে প্রশাসন। ইতিমধ্যেই সংক্রমিতদের সংস্পর্শে আসা অন্যদের হোম আইসোলেশনে থাকা যাবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, ‘কেউ করোনা আক্রান্ত হলেই তাঁর সংস্পর্শে থাকা ব্যক্তিদের সরকারি কোয়ারান্টিনে রাখা হয়। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যদি বাড়িতে জায়গা থাকে এবং তাঁরা কোয়ারান্টিনেরনিয়ম মেনে চলেন, তা হলে আর জোর করে তাঁদের সরকারি কোয়ারান্টিনে তুলে আনা হবে না।’

আরও পড়ুন: করোনা যেন জাঁকিয়ে বসছে, ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ হাজার ছুঁইছুঁই

মমতা এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেখানো সেই পথেই হাঁটছে কেন্দ্রীয় সরকারও। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের তরফে জারি করা নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, করোনা আক্রান্তদের ভর্তি হতে হত কোভিড কেয়ার সেন্টার, ডেডিকেটেড কোভিড হেলথ সেন্টার অথবা ডেডিকেটেড কোভিড হাসপাতালে। তবে এবার থেকে প্রি-সিমটোম্যাটিক রোগীদের বাড়িতে সুবিধে থাকলে তাঁরা সেখানেই সেল্ফ আইসোলেশনে থাকতে পারবেন।

Related Articles

Back to top button
Close