fbpx
কলকাতাহেডলাইন

করোনা আতঙ্কের মাঝেই কলকাতায় ডেঙ্গির থাবা! আক্রান্ত এক বৃদ্ধ ও কিশোর

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: গত তিন মাস ধরে করোনা আতঙ্ক তাড়া করে বেরোচ্ছে  গোটা বিশ্ব থেকে দেশ এমনকি রাজ্যের মানুষকে। রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১০০০০ ছুঁতে চলেছে এবং মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় ৪৫০। আর এরই মাঝে নিঃশব্দে হানা দিল গত কয়েক বছরের অন্যতম ত্রাস ডেঙ্গি। খাস কলকাতায় ডেঙ্গি আক্রান্ত দু’জন।

করোনা আবহে প্রায় সবাই বর্ষার মুখে ডেঙ্গির কথা ভুলেই বসেছিল। অনেক ক্ষেত্রে আগে থেকে ডেঙ্গির জন্য সর্তকতা নেওয়া হয়ে ওঠেনি। তবে সম্প্রতি আমফান ঘূর্ণিঝডের পরে রাজ্যের ঠিক সময় প্রবেশ করেছে বর্ষা। এদিকে আগে থেকেই ঘূর্ণিঝড়ের কারণে কলকাতা,উত্তর ২৪ পরগনা,দক্ষিণ ২৪ পরগনা,পূর্ব মেদিনীপুর,নদীয়া,হুগলি জেলার বিস্তীর্ণ অংশে প্রচুর জল জমে গিয়েছে। আর এবারে গরমকালেও পর পর বৃষ্টির ফলেও জল জমে গিয়েছে। করোনা নিয়ে এই অতিসতর্কতারই ফাঁক গলে ডেঙ্গি হানা দিল মহানগর কলকাতায়।

জানা গিয়েছে, মধ্য কলকাতার থিয়েটার রোডের পাশেই মিডলটন স্ট্রিট এর বাসিন্দা এক ৭৮ বছর বয়সি বৃদ্ধ সম্প্রতি জ্বরে আক্রান্ত হন। সারা শরীরে যন্ত্রণা,বমিও শুরু হয়। মিন্টো পার্কের বেসরকারি হাসপাতালের বেলভিউ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে প্রথমে যথারীতি করোনা পরীক্ষা করা হলেও কিন্তু তাতে নেগেটিভ রিপোর্ট আসে। এরপরই সেখানকার মেডিসিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা ওই বৃদ্ধের ডেঙ্গি পরীক্ষা এলাইজা টেস্ট করেন। আর সেখানেই ডেঙ্গির অস্তিত্ব নিশ্চিত হয়। প্রথমে ডেঙ্গি আক্রান্ত বৃদ্ধের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে আই সি ইউ তে ভর্তি করা হয়। তবে বর্তমানে তাঁর শারীরিক অবস্থার অনেকটাই উন্নতি হয়েছে বলে জানিয়েছে চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুন: ১২ বছরের কম বয়সি ছেলে-মেয়েদের আপাতত স্কুলে না পাঠানোর আর্জিতে মামলা হাইকোর্টে

অন্যদিকে বালিগঞ্জের বাসিন্দা ১৩ বছর বয়সি এক কিশোরের সম্প্রতি তীব্র মাথা যন্ত্রণা শরীরে ব্যথা, চোখের যন্ত্রণা শুরু হওয়ায় পরিবারের তরফে তাকে পার্ক সার্কাসের ইনস্টিটিউট অফ চাইল্ড হেলথ এ ভর্তি করা হয়। সেখানকার চিকিৎসকরাও তার করোনা পরীক্ষা করেন। কিন্তু করোনা পরীক্ষা রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পরই তার ডেঙ্গির পরীক্ষা করা হয়। আর সেই রিপোর্টে দেখা যায় ডেঙ্গিতে আক্রান্ত ওই কিশোর। ভর্তির পর থেকে কিশোরের প্লেটলেট দ্রুত কমতে শুরু করে। তাকে আইসিইউতে স্থানান্তরিত করা হয়। তার শারীরিক অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক বলে জানান চিকিৎসকরা। শীত এবং গরমকাল কেটে গিয়ে ইতিমধ্যেই বর্ষার মরসুম এসে গিয়েছে। তাই জ্বর,গায়ে ব্যথা থাকলে শুধুমাত্র করোনা পরীক্ষা না করে ডেঙ্গি পরীক্ষাও করা উচিত বলে বলছেন চিকিৎসকরা।

Related Articles

Back to top button
Close