fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মিলল করোনা আক্রান্তের সন্ধান, গোষ্ঠী সংক্রমনের আশঙ্কা শিলিগুড়িতে

সঞ্জিত সেনগুপ্ত শিলিগুড়ি: এবার করোনা আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মিললো। শহরের ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাবুপাড়া এবং ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ডাঙ্গিপাড়া থেকে মোট ২ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মেলায় শহরে করোনার গোষ্ঠী সংক্রমণের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে৷ বাবুপাড়া যে ব্যক্তি আক্রান্ত হয়েছেন সম্প্রতি তিনি কলকাতা থেকে এসেছেন বলে স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে। তবে ডাঙ্গীপাড়ার আক্রান্ত ব্যক্তির ভ্রমণেনর কোনও ইতিহাস নেই। তিনি পেশায় ফল বিক্রেতা। তার পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে তিনি শিলিগুড়ি রেগুলেটেড মার্কেট যেতেন ফল কেনার জন্য। স্বাস্থ্য দফতর এবং স্থানীয় মানুষের ধারণা রেগুলেটেড মার্কেট যাওয়ার কারণে সেখান থেকেই তার করোনা সংক্রমণ হতে পারে।

এখন স্বাস্থ্য দফতরও পুলিশ প্রশাসন সন্ধানে নেমেছে, শহরের কোন কোন জায়গায় ঘুরে ঘুরে ওই আক্রান্ত ব্যক্তি ফল বিক্রি করেছেন। তার সংস্পর্শে কোন কোন এলাকার মানুষ এসেছেন তা এখনই নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না।
এই জায়গা থেকে শহরে ব্যাপক গোষ্ঠীর সংক্রমণের আশঙ্কা দেখা দিয়েেেেেছে।  যদিও

শিলিগুড়ি মহকুমা শাসক সুমন্ত সহায় এবং শিলিগুড়ি পুরসভার প্রসাশক বোর্ডের চেয়ারম্যান অশোক ভট্টাচার্য জানিয়েছেন আক্রান্তদের বাড়ি এবং সংলগ্ন এলাকা স্যানিটাইজ করার পাশাপাশি সেই এলাকা কনন্টেনমেন্ট জোন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। প্রতিরোধের প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, আক্রান্ত ওই দুই ব্যক্তির প্রথম জন কলকাতা থেকে আসার পর শারীরিক অসুস্থতা বোধ করায় শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে গিয়েছিলেন। ডাক্তাররা পরীক্ষার পর তাকে হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি লালারস সমূনা পরীক্ষা করতে বলেন। সেই মতো তার লালারসের নমূনা সংগ্রহ করে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছিল। ডাঙ্গিপাড়ার আক্রান্ত ফল বিক্রেতার ক্ষেত্রেও শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতাল একই পদক্ষেপ করে।
শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতাল থেকে ওই দুজনের লালারসের নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। এদিন সেই রিপোর্ট আসার পর হাসপাতালে তরফে বিষয়টি পুলিশ প্রশাসনকে জানানো হয়। সেই মতো বাড়ি গিয়ে তাদের দুজনকে শিলিগুড়ির কোভিট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিরা যে ফ্ল্যাটে থাকতেন সেই এলাকার বাসিন্দাদের উপর নজরদারি রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার

Related Articles

Back to top button
Close