fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দুই কর্মীর করোনা পজেটিভ, বন্ধ করে দেওয়া হল ব্যাঙ্ক

মিল্টন পাল, মালদা: রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যঙ্কের দুই কর্মীর করোনা পজেটিভ হওয়ায় অনিদিৃষ্ট কালের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হল ব্যাঙ্ক। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর বারোদুয়ারীর রাষ্ট্রীয় ব্যাঙ্কের শাখায়। অন্যদিকে করোনা সংক্রমন আটকাতে মালদার ইংরেজবাজার ও পুরাতন মালদা পুরসভা এলাকায় শুক্রবার থেকে সমস্ত বাজার দোকান বন্ধ করে দেওয়া হল। শহরের প্রবেশ পথে ব্যারেকেড করে আটকে দেয় পুলিশ।

জেলা প্রশাসনিক ভবনে বৈঠকের পর জেলার দুই পৌরসভা এলাকায় লকডাউন করা হয়। প্রতিদেন জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হুহু করে বাড়ছে। আর এই সংক্রমনের রেশ ভাঙতে এধরনের সিদ্ধান্ত বলে জেলা প্রশাসন সুত্রে খবর। শুক্রবার ইংরেজবাজার পুর এলাকার নেতাজী পুরো বাজার,চিত্তরঞ্জন,আজাহারুদ্দিন মার্কেট,ঋষি বঙ্কিম চন্দ্র মার্কেট, গৌড় রোড বাজার সকাল থেকেই বন্ধ। দেখতে পাওয়া যায় নি ক্রেতাদের। রাস্তায় সকাল থেকে কিছু মানষকে দেখা গেলেও বেলা বাড়তে জনশুন্য হয়ে পরে শহর। মাস্ক বিহীন ও অযথা ঘোরাঘুরি করা মানুষদের সচেতন করতে ও আইনী পদক্ষেপের ব্যবস্থা করে জেলা পুলিশ প্রশাসন।

অন্যদিকে পুরাতন মালদা পুরো এলাকার সদরঘাট এলাকায় চোখে পরে ভিন্ন চিত্র। সেখানে সদরঘাট এলাকায় কিছু সব্জী ব্যবসায়ী বাজার খোলে। রীতিমত ক্রেতারা বাজারও করে। যদিও পরে পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাজার বন্ধ হয়ে যায়। অন্য সমস্ত বাজার ও দোকান পাট বন্ধ থাকে। পুরো এলাকায় বাসিন্দা সান্নিধ্য চক্রবর্তী জানান,  যে ভাবে জেলায় মানুষ করোনা আক্রান্ত হচ্ছে। তা যথেষ্ট উদ্বেগের কারন। প্রশাসন বাজার দোকান বন্ধের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা আরো আগে নিলে হয়তো তা অনেকটা কমতো। পাশাপাশি মানুষকেও এবিষয়ে সচেতন হতে হবে। অযথা যারা বাইরে বেড় হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ যে কঠোর হয়েছে আরো কঠোরের আবেদন জানাবো। এতে জেলার মানুষ অনেকটা রক্ষা পাবে। সংক্রমন সহজে ছড়িয়ে পরবে না। তবে প্রশাসনকে আরও কঠোর হতে হবে।

আরও পড়ুন: প্রকাশিত হল এবছরের উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্ট

স্বাস্থ্য দফতর সুত্রে খবর এখনো পর্যন্ত জেলায় ১৫২২জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। সুস্থ হয়েছে ৯৩৩জন। মৃত্যু হয়েছে সাত জনের। এদিনও জেলায় আক্রান্ত হয়েছে ৮৪জন। যার মধ্যে রয়েছে এডিএম এল আর,মানিকচক বিডিও সহ অনেকেই। জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর ব্লক এলাকায় ১৮জুলাই থেকে ২৮শে জুলাই পর্যন্ত আংশিক লক ডাউন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে। এবিষয়ে ইতিমধ্যে বৈঠক করা হয়। হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্ঝয় কুমার দাস বলেন,করোনা মোকিবিলার জন্য আংশিক লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মানুষের কাছে আবেদন করবো আইন যাতে কোন ভাবে না ভাঙে। ভাঙলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অন্যদিকে মানিকচক ব্লক আধিকারীক করোনা পজিটিভ ধরা পরে বৃহস্পতিবার। এই ঘটনার পর সিল করে দেওয়া হয়েছে ব্লক দপ্তর। শুরু হয়েছে সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের চিহ্নিতের কাজ। স্যানিটাইজারের কাজও শুরু হয়েছে। হরিশ্চন্দ্রপুর এলাকায় রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্কের দুই কর্মীর করোনা পজেটিভ ধরা পরায় অনিদিৃষ্ট কালের জন্য বন্ধো করে দেওয়া হয় ব্যাঙ্ক।

হরিশ্চন্দ্রপুর দুই নম্বর ব্লকের বিডিও প্রীতম সাহা বলেন,এস বি আই বারোদুয়ারী শাখার দুই কর্মীর করোনা পজেটিভ হওয়ায় ব্যাঙ্ক বন্ধো করে দেওয়া হয়েছে। আক্রান্তরা হোম আইসোলেশনে রয়েছে। অবস্থার অবনতি হলে কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হবে। শুরু হয়েছে সংস্পর্শে আশা ব্যাক্তিদের চিহ্নিত করনের কাজ। মালদা জেলা পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন,করোনা মোকাবিলায় জরুরী অবস্থায় লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যদি কেউ আইন ভাঙে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close