fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

উপসর্গবিহীন করোনা পজিটিভরা অসতর্ক ভাবে করোনার সংক্রমন ছড়াচ্ছে, দাবি প্রশাসনের

অলোক কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর: উপসর্গবিহীন করোনা পজিটিভরা উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ব্যারাকপুর মহকুমায় সংক্রমন ছড়াচ্ছে, এমনটাই প্রশাসন সূত্রের খবর। ব্যারাকপুর মহকুমায় বর্তমানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১০ হাজার ছুঁয়েছে। ব্যারাকপুর মহকুমার বিভিন্ন পুরসভা এলাকায় এবং গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু কিভাবে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা?

প্রশাসন সূত্রের খবর, জ্বরের রোগী অনেকেই করোনা পরীক্ষা করছে না, আবার অনেকে জ্বর হলে করোনা পরীক্ষা করছে। উভয় ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে, গায়ে জ্বর থাকলেও শারীরিক ক্ষমতা থাকায় তারা সমাজে বন্ধু বান্ধবের সঙ্গে অবাধে মিশছে। কর্মস্থলে যাচ্ছে, দোকান, বাজার সবই করছে। এই সব রোগীর সংখ্যা বর্তমানে ব্যারাকপুর মহকুমায় বেশী। যারা সচেতন না হয়ে সমাজে ক্রমাগত করোনা ছড়াচ্ছে।

[আরও পড়ুন- বিধায়কের রহস্যমৃত্যুর ঘটনায় মূল অভিযুক্তের ফের ৪ দিনের সিআইডি হেফাজত]

এই প্রসঙ্গে উত্তর ব্যারাকপুর পৌরসভার প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য অভিজিত মজুমদার বলেন, “আমার সকলের কাছে অনুরোধ, আপনারা সকলে সচেতন হোন। যারা করোনা পরীক্ষা করার পর বুঝতে পারছেন আপনারা উপসর্গবিহীন তারা জনবহুল এলাকায় যাওয়া বন্ধ করুন, বাড়িতে থাকুন। ইচ্ছে হলে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হতে পারেন। আমাদের পুরসভার ডাক্তার বাবুর পরামর্শ নিন। আবার অনেকে সর্দি জ্বর মনে করে কোন পরীক্ষা করাচ্ছেন  না। ফলে তারা করোনা পজিটিভ হয়ে থাকলে তাদের মধ্যে থেকেও ছড়াচ্ছে করোনা।

নাগরিকদের উদ্দেশ্যে বলব, উপসর্গবিহীন যারা জ্বরের রোগী তারাও ঘরে থাকুন। আপনারা নিজেরা সুস্থ থাকলে, নাগরিক সমাজ সুস্থ থাকবে।” প্রশাসন করোনা সম্পর্কে যে নির্দেশ জারি করেছে সেই নির্দেশ যাতে সকল নাগরিকরা মেনে চলেন, সেই অনুরোধ করা হচ্ছে জেলার সবকটি পুরসভার পক্ষ থেকে। এদিকে চলতি মাসে যে কদিন লকডাউন জারি করেছে রাজ্য সরকার, সেই কদিন লকডাউন সফল করতে বিভিন্ন থানার পুলিশ কড়া ভূমিকা পালন করবে বলে সূত্রের খবর।

 

Related Articles

Back to top button
Close