fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মালদা শহরের চারটি উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে চালু করা হবে করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র

মিল্টন পাল, মালদা: শহরের চারটি উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র খোলার উদ্যোগ নিল রাজ্য সরকার। ইংরেজবাজার পুরসভা ও স্বাস্থ্য দফতরের যৌথ উদ্যোগে মালদা শহরের ঘিঞ্জি এলাকাগুলিতে মূলত করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র চালু করা হবে বলে পুরসভা ও প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে। শহরের বুড়াবুড়িতলা, সুভাষপল্লী, রামকৃষ্ণ মিশন রোড এবং বালুচর এলাকায় আপাতত চারটি পরীক্ষা কেন্দ্র চালু করা হচ্ছে। এই এলাকাগুলিতে পুরসভার উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র রয়েছে। সেখানে করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র চালু করা হচ্ছে। আগামী সোমবার থেকে করোনা পরীক্ষা চালু করে দেওয়া হবে । প্রতিদিন একেকটি সেন্টারে ১৫০ জন মানুষের করোনা পরীক্ষায় লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হবে।

বুধবার মালদা শহরে নতুন করে করোনার আক্রান্ত হয়েছে ছয় জন। ইংরেজবাজার ব্লকের নরহাট্টা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় রয়েছে একজন। মোট সাতজন এদিন করোনা আক্রান্তের কথা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে। এখনও পর্যন্ত মালদা জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৩৪। আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য কোভিড হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করানো হয়েছে। কিন্তু বুধবার শহরের ছয়টি এলাকায় পৃথকভাবে ছয় জনের শরীরে করোনা সংক্রামণ মেলায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে। শহরের কৃষ্ণপল্লি, গ্রীনপার্ক , উত্তর বালুচর , রেল কলোনি সহ ছটি এলাকাতেই ছয়জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে একজন মহিলা পুলিশ কনস্টেবল রয়েছে। ঠিক তেমনি একজন রেলকর্মীর ছেলেও রয়েছেন। তবে কি মালদায় গোষ্ঠী সংক্রমণের প্রাদুর্ভাব শুরু হতে চলেছে , যদিও এ প্রসঙ্গ নিয়ে পরিষ্কারভাবে প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে কিছুই জানা যায় নি। তবে প্রশাসনের একটি সূত্র থেকে জানানো হয়েছে আক্রান্তেরা বিগত দিনে করোনা সংক্রামকদের সংস্পর্শে ছিলেন।

আরও পড়ুন: দুই দুঃস্থ ছাত্রীর পড়াশোনার দায়িত্ব নিল দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসক উজ্জ্বল আচার্য 

মালদা শহরের রেলকলোনি,গ্রীনপার্ক, উত্তর বালুচর সহ বেশ কিছু এলাকায় করোনাই আক্রান্ত রোগীর বাড়ির এলাকায় বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে ঘিরে দিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা । আতঙ্ক এতটাই ছড়িয়েছে যে অনেকেই ঘরবাড়ি থেকে বাইরে বের হতে এখন সাহস পাচ্ছেন না। নিত্য প্রয়োজনীয় কাজ থাকলেও বুধবার ওইসব এলাকার রাস্তাঘাট কার্যত অনেকটাই শুনসান দেখা গিয়েছে। তবে মালদা শহরের নেতাজি সুভাষ রোড, ফোয়ারা মোড়, মকদমপুর, রথবাড়ি সহ একাধিক এলাকার বাজারে দোকানে যেমন মানুষের ভিড় উপচে পড়েছে। ঠিক তেমনি যানজটে জেরবার হতে হয়েছে সাধারণ মানুষকে। আর এসবের মধ্যে শহরে এখন করোনার থাবা বসাতেই তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।

ইংরেজবাজার পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর চেয়ারপার্সন তথা বিধায়ক নিহার ঘোষ বলেন, রাজ্য সরকারের উদ্যোগে এবং স্বাস্থ্য দফতরের সহযোগিতায় শহরের চারটি উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র চালু করা হচ্ছে। এলাকার বাসিন্দারা ইচ্ছে করলেই ওইসব উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে এসে করোনা পরীক্ষা করাতে পারবেন।সম্পূর্ণ বিনামূল্যেই করোনা পরীক্ষা করানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।ধীরে ধীরে পুরসভার ২৯টি ওয়ার্ডের এই উদ্যোগ নেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close