fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মায়ের শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের খরচের টাকায় খাদ্যসামগ্রী কিনে দুঃস্থদের হাতে তুলে দিলেন বাদকুল্লার এক শিক্ষক

অভিষেক আচার্য, কল্যাণী: লকডাউনে তাল কেটেছে জীবনের স্বাভাবিক ছন্দে। দেশের যা পরিস্থিতি, তাতে মায়ের শ্রাদ্ধানুষ্ঠানও করতে পারলেন না নদীয়ার পূর্ব বাদকুল্লার শীতলাতলার বাসিন্দা সুপ্রতীপ রায়।

কোনওক্রমে ঘরোয়া নিয়ম পালন করেই মায়ের আত্মার শান্তি কামনা করলেন। তিনি জানেন, এই মুহূর্তে সবচেয়ে জরুরি করোনার মোকাবিলা করা। আর তাই শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের পরিবর্তে দুঃস্থদের দিলেন ত্রাণ।
পেশায় শিক্ষক সুপ্রতীপবাবু। তিনি বাদকুল্লা অঞ্জনগড় উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক। দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তাঁর মা রিক্তা রায়। হঠাৎ সংসারে নামে শোকের ছায়া। লকডাউনের মধ্যেই গত ১৫এপ্রিল মারা যান তিনি।

কিন্তু দেশের এমন পরিস্থিতিতে তো আর লকডাউনের নিয়ম ভেঙে লোক নিমন্ত্রণ করে খাওয়ানো যায় না। তাই সুপ্রতীপবাবু ঠিক করে ফেলেন, শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের জন্য যে অর্থ খরচ হবে সেই অর্থ মানুষের হিতেই কাজে লাগাবেন। যেমন ভাবনা তেমনি কাজ। ঘরোয়াভাবে সারলেন সমস্ত আচার-অনুষ্ঠান। তারপর শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের অর্থ দিয়ে দুঃস্থদের জন্য খাদ্যসামগ্রী কিনে বিলি করেন।

সুপ্রতীপবাবু বলেন, প্রায় ৩৫০ দুঃস্থদের হাতে তিনি ত্রাণ তুলে দিয়েছেন। দিয়েছেন, চাল,আটা, সয়াবিন, মুসুর ডাল ও আলু। এতেই তাঁর মায়ের আত্মা শান্তি পাবে বলে জানান তিনি। তাঁর এই উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন পরিবার থেকে আত্মীয়রা। পাশে পেয়েছেন স্থানীয় ইউনাইটেড ক্লাবের সদস্যদেরও। দেশের সংকটের দিনে গরিব মানুষের পাশে দাঁড়াতে এভাবেই অনুপ্রেরণা জোগালেন  সুপ্রতীপবাবু।

Related Articles

Back to top button
Close