fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

ফের বিশ্বরেকর্ড ভারতের, দেশে একদিনে করোনার আক্রান্ত ৯৭ হাজারেরও বেশি মানুষ, সুস্থও হয়েছেন ৮১,৫৩৩

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: দৈনিক করোনা সংক্রমণের নিরিখে ফের বিশ্বরেকর্ড ভারতের। একদিনে করোনার কবলে সাড়ে ৯৭ হাজারেরও বেশি মানুষ। বিশ্বরেকর্ড মৃতের সংখ্যার নিরিখেও। মুহূর্তে মোট রোগীর তিন চতুর্থাংশেরও বেশি সুস্থ। সক্রিয় রোগী মাত্র এক চতুর্থাংশ। তবে, দৈনিক সংক্রমণ নিয়ে উদ্বেগ এখনও কাটছে না আমেরিকা এবং ব্রাজিল দুই দেশের থেকেই ভারতের দৈনিক সংক্রমণ কয়েক গুণ বেশি।দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাতেও এই মুহূর্তে ভারত বিশ্বে প্রথম স্থানে।

শনিবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৯৭ হাজার ৫৭০ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের থেকে সামান্য বেশি। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৬ লক্ষ ৫৯ হাজার ৯৮৫ জন।  গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ২০১ জনের। যা বিশ্বের অন্যান্য দেশের থেকে অনেক বেশি। ফলে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭৭ হাজার ৪৭২ জন। মোট মৃতের সংখ্যার নিরিখে এই মুহূর্তে বিশ্বে তৃতীয় ভারত। তবে মৃতের সংখ্যাটা বাড়লেও দেশের মৃত্যুহার এখনও কমের দিকেই।  আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যায় ফের রেকর্ড করলেও সুস্থতার সংখ্যাটা খানিকটা স্বস্তি দিচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সুস্থ হয়েছেন ৮২ হাজারেরও বেশি মানুষ। যা এখনও পর্যন্ত রেকর্ড। দেশে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা ৩৬ লক্ষ ২৪ হাজার ১৯৭ জন।

ভারতের কোভিড পরিসংখ্যানে শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। এখানে সংক্রমণে প্রভাব সবচেয়ে বেশি। পুনে এবং থানেতে হু হু করে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। মারাঠা প্রদেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ১০ লাখ। এখনও পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯,৯০,৭৯৫ জন। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ২৮,২৮২ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৭,০০,৭১৫ জন। মহারাষ্ট্রে এখন অ্যাকটিভ কেস ২,৬১,৭৯৮। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫,৩৭,৬৮৭। কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৪৭০২ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪,৩৫,৬৪৭ জন। অন্ধ্রপ্রদেশে অ্যাকটিভ কেস ৯৭,৩৩৮। তৃতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। এখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৪,৮৬,০৫২। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৮১৫৪ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪,২৯,৪১৬ জন। তামিলনাড়ুতে অ্যাকটিভ কেস ৪৮,৪৮২।

আরও পড়ুন: যাত্রী সুবিধার কথা ভেবে আজ থেকে শুরু হল স্পেশাল ট্রেনের যাত্রা

চতুর্থ স্থানে রয়েছে কর্নাটক। এখানে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪,৩০,৯৪৭ জন। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৬৯৩৭ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৩,২২,৪৫৪ জন। কর্নাটকে অ্যাকটিভ কেস ১,০১,৫৫৬। পঞ্চম স্থানে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২,৯২,০২৯। কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৪২০৬ জনের। সুস্থ হয়েছেন ২,২১,৫০৬ জন। উত্তরপ্রদেশে অ্যাকটিভ কেস ৬৬,৩১৭। ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে রাজধানী শহর দিল্লি। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২,০৫,৪৮২। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৪৬৬৬ জনের। সুস্থ হয়েছেন ১,৭৫,৪০০ জন। দিল্লিতে অ্যাকটিভ কেস ২৫,৪১৬।

 

Related Articles

Back to top button
Close