fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

দেশে ফের বাড়ল সংক্রমণ, একদিনে আক্রান্ত ৯০ হাজার

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: বাধ ভাঙা সংক্রমণ মাত্র দু’দিনে দেশে আক্রান্ত দেড় লক্ষের বেশি। মাঝখানে একদিন সামান্য কম ছিল সংখ্যাটা। ফের ৯০ হাজারের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেল দেশের দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। ফলে দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা পৌঁছে গেল ৪৪ লক্ষের কাছাকাছি। এই নিয়ে টানা ৩৪ দিন বিশ্বের মধ্যে ভারতের আক্রান্তের সংখ্যা সর্বোচ্চ। মোট সংক্রমণের নিরিখে তৃতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলের থেকে ব্যবধান আরও বাড়ল ভারতের। আমেরিকা এবং ব্রাজিল দুই দেশের থেকেই ভারতের দৈনিক সংক্রমণ কয়েক গুণ বেশি।

বুধবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৮৯ হাজার ৭০৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের থেকে প্রায় ১৪ হাজার বেশি। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৩ লক্ষ ৭০ হাজার ১২৯ জন। আক্রান্তের সংখ্যা ফের বাড়লেও সুস্থতার সংখ্যাটা খানিকটা স্বস্তি দিচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার কবল থেকে মুক্তি পেয়েছেন ৭৪ হাজারের বেশি মানুষ। ফলে দেশে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৩৩ লক্ষ ৯৮ হাজার ৮৪৫ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১১৫ জনের। এখন প্রায় নিয়মিতই হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। ফলে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭৩ হাজার ৯৮০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা পরীক্ষার হয়েছে প্রায় ১২ লক্ষের কাছাকাছি।

ভারতের কোভিড পরিসংখ্যানে প্রথম থেকেই শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯ লাখ পেরিয়েছে ইতিমধ্যেই। এখন মহারাষ্ট্রে করনা আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৯,২৩,৬৪১। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ২৭,০২৭ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৬,৫৯,৩২২ জন। মহারাষ্ট্রে অ্যাকটিভ কেস ২,৩৭,২৯২। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫,০৬,৪৯৩। কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৪৪৮৭ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪,০৪,০৭৪ জন। অন্ধ্রপ্রদেশে অ্যাকটিভ কেস ৯৭,৯৩২। তৃতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪,৬৯,২৫৬। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৭৯২৫ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪,১০,১১৬ জন। তামিলনাড়ুতে অ্যাকটিভ কেস ৫২,২১৫।

আরও পড়ুন: ২১ সেপ্টেম্বর শুরু স্কুলের আংশিক পঠনপাঠন, জেনে নিন কি কি নিয়ম মানতে হবে

চতুর্থ স্থানে রয়েছে কর্নাটক। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪,০৪,৩২৪। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৬৫৩৪ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৩,০০,৭৭০ জন। কর্নাটকে অ্যাকটিভ কেস ৯৭,০২০। পঞ্চম স্থানে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ। এখান করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২,৭১,৮৫১। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৩৯৭৬ জনের। সুস্থ হয়েছেন ২,০৫,৭৩১ জন। উত্তরপ্রদেশে অ্যাকটিভ কেস ৬২,১৪৪। ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে রাজধানী শহর দিল্লি। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১,৯৩,৫২৬। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৪৫৯৯ জনের। সুস্থ হয়েছে ১,৬৮,৩৮৪ জন। দিল্লিতে অ্যাকটিভ কেস ২০,৫৪৩।

 

Related Articles

Back to top button
Close