fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

দেশে দৈনিক সংক্রমণ লাখের কাছে, চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা পেরল ১০ লক্ষ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  দৈনিক নতুন করোনা-আক্রান্তের সংখ্যায় ফের রেকর্ড হল দেশে। একদিনে করোনা সংক্রমণ এবার লাখের দোরগোড়ায় পৌঁছে গেল। একদিনের জন্য কিছুটা কমেই বুধবাক ফের ঊর্ধ্বমুখী হয় গ্রাফ।  উদ্বেগ বাড়িয়ে শুধু গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনার কবলে পড়লেন প্রায় ৯৮ হাজার মানুষ। সেই সঙ্গে দেশে চিকিৎসাধীন করোনা রোগীর সংখ্যা অর্থাৎ অ্যাক্টিভ কেস পেরিয়ে গেল ১০ লক্ষের গণ্ডি। তবে স্বস্তির খবর, সক্রিয় রোগীর প্রায় চারগুণ করোনা আক্রান্ত ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৯৭ হাজার ৮৯৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের থেকে হাজার সাতেক বেশি। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫১ লক্ষ ১৮ হাজার ২৫৪ জন। আক্রান্তের সংখ্যায় ভারতের থেকে অনেকটাই পিছনে ব্রাজিল। আমেরিকা এবং ব্রাজিল দুই দেশের থেকেই ভারতের দৈনিক সংক্রমণ কয়েক গুণ বেশি। এই মুহূর্তে ভারতে চিকিৎসাধীন করোনা রোগীর সংখ্যা ১০ লক্ষ ৯ হাজার ৯৭৬ জন।

আক্রান্তের পাশাপাশি মৃতের সংখ্যাটাও উদ্বেগজনক।  গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১৩২ জনের। ফলে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮৩ হাজার ১৯৮ জন। তবে আতঙ্কের মধ্যে স্বস্তি দিচ্ছে সুস্থতার হার। গত ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ৮৯ হাজার মানুষ সুস্থ হয়েছেন। ফলে এই মুহূর্তে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা ৪০ লক্ষ ২৫ হাজার ৮০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় অনেকটা বেড়েছে করোনা পরীক্ষার সংখ্যা। একদিনে দেশে করোনা পরীক্ষা হয়েছে প্রায় সাড়ে ১১ লক্ষ মানুষের।

আরও পড়ুন: দেবী দুর্গার কাছে করোনা মুক্তির জন্য শক্তি চাইলেন প্রধানমন্ত্রী, টুইট করে মহালয়ার শুভেচ্ছা মোদির

এই সুস্থতার হার দ্রুত কমাতে না পারলে সামনে সমস্যা হতে পারে বলেই মনে করছে আইসিএমআর। সেই কারণে কেন্দ্র ও রাজ্যকে নির্দিষ্ট কিছু গাইডলাইনও দেওয়া হয়েছে এই সংগঠনের পক্ষ থেকে। এখনও পর্যন্ত দেশে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে মহারাষ্ট্রে। মোট ১১ লক্ষের মধ্যে এখনও সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা প্রায় ৩ লক্ষ। এরপরে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ। এখানে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৯৬ হাজারের বেশি। তৃতীয় স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। এখানে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯০ হাজারের মত। এরপর রয়েছে দিল্লি, সেখান সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৩১ হাজারের মতো। পশ্চিমবঙ্গে বর্তমানে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ২৩ হাজারের কিছু বেশি। দেশে বুধবার পর্যন্ত ৬ কোটির বেশি করোনা পরীক্ষা হয়েছে বলে জানিয়েছে আইসিএমআর। তাদের হিসেবে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৬.৫ কোটি। গতকালই স্যাম্পেল টেস্ট হয়েছে ১১ লাখের বেশি। প্রতিদিনই উত্তরোত্তর বাড়ছে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা।

Related Articles

Back to top button
Close