fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা এক লক্ষ ছুঁইছুঁই, কমল দৈনিক সংক্রমণ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: দেশে সংক্রমণের গতি আগের তুলনায় খানিকটা কমানো গেলেও,  নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না মৃতের সংখ্যা। ভারতে করোনায় মৃত্যুহার অন্যান্য অনেক দেশের তুলনায় কম। কিন্তু মোট মৃতের সংখ্যাটা রীতিমতো উদ্বেগজনক। সংক্রমণে মৃতের সংখ্যা এক লক্ষ ছুঁইছুঁই। এর আগে শুধুমাত্র আমেরিকা এবং ব্রাজিল এই উদ্বেগের পরিসংখ্যান পেরিয়েছে।  তবে সুস্থও হয়েছেন সাড়ে ৫৩ লক্ষের বেশি মানুষ।

শুক্রবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৮১ হাজার ৪৮৪ জন করোনা  আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের থেকে প্রায় ৫ হাজার কম। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৩ লক্ষ ৯৪ হাজার ৬৯ জন। আক্রান্তের থেকেও গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যাও উদ্বেগজনক। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৯৫ জনের। ফলে দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯৯ হাজার ৭৭৩ জন। অর্থাৎ আগামিকালই বিশ্বের তৃতীয় দেশ হিসেবে ১ লক্ষের বেশি মৃত্যুর পরিসংখ্যানে ঢুকে যাবে ভারত।

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৭৯ হাজারের কিছু বেশি মানুষ। ফের আক্রান্তের তুলনায় খানিকটা কম সুস্থ রোগীর সংখ্যা। এই মুহূর্তে দেশে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা ৫৩ লক্ষ ৫২ হাজার ৭৮ জন। সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৯ লক্ষ ৪২ হাজার ২১৭। যা আগের দিনের তুলনায় হাজার দুয়েক বেড়েছে। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১০ লক্ষ ৯৭ হাজারের কিছু বেশি। এই সংখ্যাটা আগের দিনের তুলনায় অনেকটা কম।

ভারতের কোভিড পরিসংখ্যানে শীর্ষে থাকা মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৩,৮৪,৪৪৬। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছ ৩৬,৬৬২ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১০,৮৮,৩২২ জন। মহারাষ্ট্রে অ্যাকটিভ কেস ২,৫৯,৪৬২। দ্বিতীয় স্থানে থাকা অন্ধ্রপ্রদেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬,৯৩,৪৮৪ জন। কোভিড সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৫৮২৮ জনের। সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৬,২৯,২১১ জন। অন্ধ্রপ্রদেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ৫৮,৪৪৫। তৃতীয় স্থানে রয়েছে কর্নাটক। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬,০১,৭৬৭। কোভিড সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৮৮৬৪ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৪,৮৫,২৬৮ জন। কর্নাটকে অ্যাকটিভ কেস ১,০৭,৬৩৫।

আরও পড়ুন: ফের ধর্ষণ করে খুন উত্তরপ্রদেশের ভিদোহিতে, মাথা থ্যাতলানো, মুখ বিকৃত কিশোরীর দেহ উদ্ধার

চতুর্থ স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। এখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫,৯৭,৬০২। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৯৫২০ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫,৪১,৮১৯ জন। তামিলনাড়ুতে অ্যাকটিভ কেস ৪৬,২৬৩। পঞ্চম স্থানে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ। এখানে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৩,৯৯,০৮২ জন। কোভিড সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৫৭৮৪ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩,৪২,৪১৫ জন। উত্তরপ্রদেশে অ্যাকটিভ কেস ৫০,৮৮৩। ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে দিল্লি। রাজধানী শহরে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২,৭৯,৭১৫ জন। কোভিড সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৫৩৬১ জনের। সংক্রমণ সারিয়ে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৩,৪৭,৪৪৬ জন। দিল্লিতে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ২৬,৯০৮।

Related Articles

Back to top button
Close