fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

২১ সেপ্টেম্বর শুরু স্কুলের আংশিক পঠনপাঠন, জেনে নিন কি কি নিয়ম মানতে হবে

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: আনলকের চতুর্থ পর্বে বেশ কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দিয়েছে কেন্দ্র। তারই মধ্যে একটি হল নতুন করে আংশিকভাবে স্কুল খোলার বিষয়টি। স্বাস্থ্য বিধি মেনে ২১ সেপ্টেম্বর নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত ক্লাস শুরু হবে বলে নির্দেশিকায় জানিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। এবার কোভিড পরিস্থিতিতে স্কুল খোলার নির্দিষ্ট বিধি (standard operation procedures) জারি করা হল।

গত মাসের শেষে আনলক ফোরের নয়া গাইডলাইন ঘোষণার সময়ই জানানো হয়েছিল আগামী ২১ সেপ্টেম্বর থেকে শর্তসাপেক্ষে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়ারা স্কুলে যেতে পারবে। তবে তার জন্য অভিভাবকদের অনুমতি আবশ্যক। মঙ্গলবার স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে জারি করা হল SOP। অর্থাৎ স্কুল যাওয়ার ক্ষেত্রে কী কী গাইডলাইন মেনে চলতে হবে, তার দীর্ঘ তালিকা। স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, সংক্রমণ এড়াতে সমস্ত কোভিড বিধি মেনেই স্কুলে আসতে হবে এবং ক্লাস করতে হবে। ছাত্রছাত্রীরা নিয়ম পালন করছে কি না, সেদিকে নজর রাখবেন শিক্ষক-শিক্ষিকা ও স্কুলের অন্যান্য স্টাফরা।

কেন্দ্রীয় নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, কনটেনমেন্ট জোনের বাইরের স্কুলগুলি খোলার অনুমোদন দেওয়া হবে। কনটেনমেন্ট জোনে বসবাসকারী পড়ুয়া, শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীরা স্কুলে আসতে পারবেন না। পড়ুয়াদেরও কনটেনমেন্ট জোনে যেতে বারণ করা হয়েছে। স্কুল খোলার আগে স্যানিটাইজ জরুরি। যে স্কুলগুলি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার হিসেবে ব্য়বহৃত হয়েছে, সেগুলিকে স্যানিটাইজ করতে হবে। এর পাশাপাশি স্কুলে ঢোকার সময়ে থার্মাল গানে তাপমাত্রা পরীক্ষা, স্যানিটাইজ করতে হবে পড়ুয়া ও শিক্ষকদের। অভিভাবকদের লিখিত অনুমতিপত্রের ভিত্তিতে ছাত্রছাত্রীরা স্বেচ্ছায় ক্লাসে আসতে পারবেন। ভার্চুয়ালি ক্লাস করার সুযোগও রয়েছে।

আরও পড়ুন: অবশেষে ৩দিন পর পুলিশের জালে ধরা পড়ল আনন্দপুর কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত অভিষেক পাণ্ডা

সংক্রমণ এড়াতে ৬ ফুটের দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। মুখে সর্বদা মাস্ক থাকা বাধ্যতা মূলক। সময়ে সময়ে সাবান বা স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধুতে হবে। হাঁচি বা কাশির সময় মুখ চেপে রাখতে হবে। অসুস্থ থাকলে আগেভাগে স্কুলকে জানাতে হবে। স্কুল চত্বরে প্রকাশ্যে থুতু ফেলা যাবে না। যে সমস্ত স্কুলগুলো কোয়ারেন্টাইন সেন্টার হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে, সেগুলিকে ভালভাবে স্যানিটাইজ করে তবেই পঠনপাঠন শুরু করা হবে।

আপাতত ৫০ শতাংশ কর্মী নিয়েই স্কুলের কাজ চালাতে হবে। স্কুলে বায়োমেট্রিকের ব্যবহার আপাতত বন্ধ থাকবে। প্রার্থনা, স্কুলের মাঠে খেলা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। ক্লাসে কিংবা স্টাফ রুমে এসির ব্যবহার করা হলে তার তাপমাত্রা কেন্দ্রের গাইডলাইন মেনে ২৪-৩০ ডিগ্রির মধ্যেই রাখতে হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্কুলের লকার রুম ব্যবহার করা যেতে পারে।

Related Articles

Back to top button
Close