fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

দেশে একধাক্কায় অনেকটা কমল দৈনিক সংক্রমণ, মোট আক্রান্ত প্রায় ৪৩ লক্ষ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  লাগাতার রেকর্ড ভাঙার পর মঙ্গলবার খানিকটা স্বস্তি দিল দেশের দৈনিক করোনা সংক্রমণের সংখ্যা। এদিন একধাক্কায় দৈনিক সংক্রমিতের সংখ্যা কমল প্রায় ১৫ হাজার। তবে, কমার পরও মঙ্গলবারের নতুন আক্রান্তের সংখ্যাটা মোটেই স্বস্তিদায়ক নয়। এদিন নতুন করে প্রায় ৭৬ হাজার মানুষ করোনার কবলে পড়েছেন। পাশাপাশি এদিনের মৃতের সংখ্যাটাও বেশ উদ্বেগজনক। মোট সংক্রমণে বিশ্ব-তালিকার আগেই দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে ভারত। ভারতের ঠিক উপরেই রয়েছে আমেরিকা। এ ছাড়াও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দেওয়া তথ্য বলছে, একদিনের সর্বাধিক সংক্রমণের নিরিখে বিশ্বে প্রায় এক মাস ধরে শীর্ষে রয়েছে আমাদের দেশ।

মঙ্গলবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৭৫ হাজার ৮০৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের থেকে প্রায় ১৫ হাজার কম। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ লক্ষ ৮০ হাজার ৪২৩ জন। মোট আক্রান্তের নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলের থেকে ব্যবধান অনেকটাই বাড়িয়ে ফেলছে ভারত। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার কবল থেকে মুক্তি পেয়েছেন ৭৩ হাজারের বেশি মানুষ। ফলে দেশে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৩৩ লক্ষ ২৩ হাজার ৯৫১ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ১৩৩ জনের। ফলে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭২ হাজার ৭৭৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা পরীক্ষার হয়েছে প্রায় ১১ লক্ষ।

এখনও পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্তের তালিকার উপর থেকে পরপর রয়েছে মহারাষ্ট্র, অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, কর্নাটক ও উত্তরপ্রদেশ। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, এখনও পর্যন্ত দেশের করোনা আক্রান্তদের ৬২ শতাংশেরও বেশি এই পাঁচ রাজ্যেরই।

আরও পড়ুন: ফের অশান্ত প্যাংগং, LAC পেরিয়ে গুলি চালিয়েছে ভারতীয় সেনা, অভিযোগ চিনের

গোটা দেশের মধ্যে করোনার সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ মহারাষ্ট্রে। মারাঠাভূমে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৯ লক্ষ ২৩ হাজার ৬৪১। মহারাষ্ট্রে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২৭ হাজার ছাড়িয়েছে। অন্ধ্রপ্রদেশেও মাত্রাছাড়া সংক্রমণ। দক্ষিণের এই রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে রীতিমতো উদ্বেগে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত দক্ষিণের এই রাজযে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫ লক্ষ ৬ হাজার ৪৯৩। অন্ধ্রে করোনায় সাড়ে চার হাজারের কাছাকাছি সংখ্যায় মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

অন্ধ্র লাগোয়া তামিলনাড়ুতেও চোখ রাঙাচ্ছে করোনা। সেরাজ্যে করোনায় এখনো পর্যন্ত ৪ লক্ষ ৭০ হাজারের কাছকাছি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৮ হাজার মানুষের। কর্নাটকেও বিপজ্জনক পরিস্থিতি তৈরি করেছে নোভেল করোনাভাইরাস। প্রতিদিন সেরাজ্যের জেলায়-জেলায় বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। রাজধানী বেঙ্গালুরুতেও করোনার সংক্রমণ লাফিয়ে বাড়ছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী কর্নাটকে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৪ লক্ষ ৪ হাজার ৩২৪। দক্ষিণের এই রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা সাড়ে ৬ হাজার ছাড়িয়েছে।পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দফতরের সর্বশেষ রিপোর্ট বলছে, সোমবার পর্যন্ত রাজ্যে করোনা আক্রান্ত বেড়ে হয়েছে ১ লক্ষ ৮৩ হাজার ৮৬৫ জন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৩ হাজার ০৭৭ জনের কোভিড ধরা পড়েছে। তবে, দু লক্ষের কাছাকাছি আক্রান্ত হলেও বাংলায় বর্তমানে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা মাত্র ২৩ হাজার ২১৬। ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত গোটা রাজ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লক্ষ ৫৭ হাজার ০২৯ জন।

 

Related Articles

Back to top button
Close