fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

গৌড়বঙ্গ বিশ্ব বিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ…ঘটনাস্থলে তদন্তকারী দল

মিল্টন পাল, মালদা: গৌড়বঙ্গ বিশ্ব বিদ্যালয় তৈরি থেকে বার বার বিভিন্ন বিষয়ে দুর্নীতির অভিযোগ উঠে আসে। কখনও প্রশ্নপত্র ফাঁস আবার কখনও নথি বা ফাইল তথ্য লোপাট। বার বার খবরের পাতায় উঠে আসে গৌড়বঙ্গ বিশ্ব বিদ্যালয়ের নাম।
সম্প্রতি এই অভিযোগ অধ্যাপকদের কাছে থেকে পেয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করেন বিজেপি নেত্রী শ্রী রূপা মিত্র চৌধুরী। আর এই একাধিক অভিযোগের ভিত্তিতে মালদার গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় তদন্ত করতে আসলেন এক তদন্তকারী দল। শনিবার সারাদিন বিভিন্ন অভিযুক্ত, বিভিন্ন প্রফেসর ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন তারা।

প্রসঙ্গত, জন্মলগ্ন থেকেই গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন আর্থিক কেলেঙ্কারি, প্রশ্নপত্র ফাঁস সহ বিভিন্ন অভিযোগ ওঠে। পাহাড়প্রমাণ অভিযোগ জমা হয় রাজ্যের শিক্ষা দফতর ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর রাজ্যপালের কাছে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই এই তদন্ত বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর। এদিন এই তদন্ত কমিটির চেয়ারম্যান তথা কোচবিহারের পঞ্চানন কলেজের প্রফেসার দেব কুমার মুখার্জীর নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল বিশ্ববিদ্যালয় আসেন। সারাদিন ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন আধিকারিক প্রফেসর ও যারা এই ধরনের ঘটনায় অভিযুক্ত রয়েছেন তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

বাংলা বিভাগের প্রফেসার সৌরেন বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, ‘আমি প্রথম থেকেই এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগে কাজ করে আসছি। একটি মেইল পেয়ে আমরা এখানে এসেছি। আমরা দেখলাম সেটি একটি তদন্ত কমিটি। বিশ্ববিদ্যালয় সংক্রান্ত কিছু প্রশ্ন ছিল। সেই প্রশ্নের পরে তারা চাইছেন বিশ্ববিদ্যালয়ে একটা শিক্ষার পরিবেশ গড়ে ওঠুক। এই বিষয়ে কিছু কথা জানতে চেয়ে ছিলেন। তবে তা তদন্ত কমিটির ফলে সে বিষয়ে সংবাদমাধ্যমে কিছু বলবো না। তবে আমরা চাই শুভ বুদ্ধির উদয় হোক। সঠিক ভাবে বিশ্ববিদ্যালয় চলুক’।

বিজেপি নেত্রী শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরী বলেন, ‘যেহেতু দক্ষিণ মালদা থেকে আমি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলাম। এই এলাকাটি আমার এলাকার মধ্যে পড়ে। সেই কারণে এর আগেও বহু অধ্যাপক এবং ছাত্র ছাত্রী একাধিক অভিযোগ আমার কাছে করেছিল। সেইমতো গত ২৩ নভেম্বর দার্জিলিংয়ে রাজ্যপালের কাছে আমি গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থিক কেলেঙ্কারি সহ বিভিন্ন অনিয়ম নিয়ে বেশ কিছু অভিযোগ জানাই। রাজ্যপাল আমাকে আশ্বাস দেন গোটা ঘটনার তদন্ত করা হবে।আমরা চাই একটি বিশ্ববিদ্যালয় সুষ্ঠ ভাবে চলুক’।

আরও পড়ুন:ভারতীয় জওয়ানদের উসকানি দিচ্ছে খলিস্তানিরা, চাঞ্চল্যকর তথ্য দিল NIA

তৃণমূলের মালদা জেলার কো-অর্ডিনেটর দুলাল সরকার বলেন, ‘শিক্ষা দফতরের পক্ষ থেকে যদি তদন্ত করা হয় সেটা সঠিক কাজ হচ্ছে। এর আগেও বেশ কিছু অভিযোগ হয়েছে। আমরা দলীয় ভাবে চাই গোটা ঘটনা তদন্ত করে দুধ জল আলাদা করা হোক।‘

যদিও তদন্ত কমিটির চেয়ারম্যান দেব কুমার মুখার্জীর কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি। খবর লেখা পর্যন্ত ম্যারাথন জিঞ্জাসাবাদ চলছে।

Related Articles

Back to top button
Close