fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কেন্দ্রের বরাদ্দ করা অর্থে রাস্তা নির্মানে দুর্নীতি, প্রতিবাদে ৩ ঘন্টা পথ অবরোধ করে রেখে বিক্ষোভ

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: সেন্ট্রাল ফিনান্স কমিশনের (CFC) বরাদ্দ অর্থে শুরু হয়েছিল পিচ রাস্তা তৈরির কাজ। সেই কাজে চূড়ান্ত দুর্নীতি হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে ৩ ঘন্টা ধরে মেমারি-তারকেশ্বর রোড অবরোধ করে রেখে বিক্ষোভ দেখালো গ্রামবাসীরা । শুক্রবার ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর থানার পাঁচড়া এলাকায়।

পরে পাঁচড়া পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষ বিক্ষোভকারী গ্রামবাসীদের কাছে পৌঁছে ওয়ার্ক অর্ডার মোতাবেক রাস্তা নির্মানের কাজের ব্যবস্থা করার আশ্বাস দিলে আবরোধ ওঠে । পথ অবরোধ বিক্ষোভে অংশ নেওয়া পাঁচড়ার বাসিন্দারা বলেন,তাঁদের এলাকার পাঁচড়া মোড় থেকে গ্রাম মসাগ্রাম যাবার মোরাম রাস্তাটি দীর্ঘ দিন ধরে বেহাল হয়ে রয়েছে।

সেই বাম আমল থেকে রাস্তাটির উন্নতি ঘটানোর দাবি জানিয়ে আসছিলেন এলাকার মানুষজন। অবশেষে প্রশাসন ওই রাস্তাটি পাকা পিচ রাস্তা করার উদ্যোগ নেয় ।কিন্তু কাজ শুরু হতে না হতেই ঠিকাদার সংস্থার লোকজন দূর্নীতি শুরু করে দিয়েছে। ঠিকাদার ওয়ার্ক অর্ডার না মেনে অতীব নিম্ন মানের রাস্তা তেরি করছে বলে গ্রামবাসীরা এদিন অভিযোগ করেছেন। পাঁচড়া গ্রামের বাসিন্দা মলয় মুখোপাধ্যায় বলেন ,“পিচ রাস্তার কাজের জন্য সিএফসি- বিজি ফান্ড থেকে অর্থ বরাদ্দ হয়েছে । তিনটি ফেজে মোট ৫৪৯,৬৯ মিটার রাস্তাটি হবার কথা ।এক একটি ফেজে রাস্তা হবে ৩ মিটার চওড়া ও ১৮৩,২৩ মিটার দীর্ঘ । প্রতি ফেজের জন্য জিএসটি সহ অর্থ বরাদ্দ হয়েছে ৯ লক্ষ ৯৯ হাজার ৯৯৯ টাকা। মোরাম রাস্তাটিতে পাকা পিচ রাস্তা তৈরির কাজ শুরুর আগেই ৪ ইঞ্চি পুরু স্টোন ডাস্টের লেয়ার দেবার পর পাথর ফেলে ভাইব্রেটরি রোলার দেবার কথা । ওয়ার্ক অর্ডারে আরও বলা হয়েছে দু-স্তর পাথর বিছিয়ে রোলার দেবার পর ২০এমএম পিচের লেয়ারের দেবার ।এরপর সিল কোট দেবার পর রাস্তার দুপাশে মাটির বাঁধন দেবার কথাও ওয়ার্ক অর্ডারে উল্লেখ রয়েছে । ”

মলয় বাবু বলেন , এই ওয়ার্ক অর্ডার মোতাবেক রাস্তা তৈরির কোন সদিচ্ছাই দেখায়নি ঠিকাদার। মোরামের উপরে ৪ ইঞ্চি পুরু স্টোন ডাস্টের লেয়ার না করেই পাথর ফেলে দেওয়া হয়েছে । অথচ প্রতি ফেজের রাস্তায় স্টোন ডাস্টের লেয়ার দেবার জন্য প্রায় ১ লক্ষ ১২ হাজার টাকা সরকারী ভাবে বরাদ্দ করা হয়েছে । এছাড়াও ভাইব্রেটরি রোলার না এনে সাধারণ রোলার ব্যবহার করা রাস্তার কাজ করা হচ্ছে বলে
মলয় বাবু অভিযোগ করেছেন।

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া পাঁচড়া গ্রামের অপর বাসিন্দা তথা জামালপুরের বিজেপির মণ্ডল সভাপতি রাহুল চৌধুরী অভিযোগে বলেন , কেন্দ্রের দেওয়া টাকা নয়ছয় হচ্ছে । পাকা রাস্তা তৈরির জন্য প্রায় ৩০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হলেও রাস্তার কাজের কোন বেনিফিসিয়ারী কমিটিই তৈরি হয়নি ।

গ্রামবাসীদের অভিযোগ প্রসঙ্গে পাঁচড়া পঞ্চায়েতের নির্মান সহায়ক ঝন্টু ভৌমিক বলেন , ‘আমাকে জামালপুর ১ ও পাঁচড়া পঞ্চায়েতের দায়িত্ব সামলাতে হয় । কাজের চাপে তিনি রাস্তা নির্মানের কাজ দেখতে যেতে পারেন নি ।’পঞ্চায়েত প্রধান লালু হেমব্রম গ্রামবাসীদের জানিয়ে দিয়েছেন , উদ্ভুত সমস্যা সমাধানে আগামী সোমবার তিনি গ্রামবাসীদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন ।

Related Articles

Back to top button
Close