fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

প্রতিবেশীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে গ্ৰেফতার দম্পতি

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: প্রতিবেশীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে গ্ৰেফতার হলেন দম্পতি। ধৃতদের নাম অজিত রুইদাস ও মীরা রুইদাস। তাদের বাড়ি পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর থানার মাঠশিয়ালি গ্রামে। সোমবার রাতে জামালপুর থানার পুলিশ বাড়ি থেকে তাদের গ্ৰেফতার করে। মঙ্গলবার ধৃতদের পেশ করা হয় বর্ধমান আদালতে। সিজেএম রতন কুমার গুপ্তা ধৃতদের ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিচার বিভাগীয় হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। দম্পতির দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি করেছে মৃতর পরিবার।

পুলিশ জানিয়েছে, দরিদ্র পরিবারের নেপাল রুইদাস বসবাস করতেন মাঠশিয়ালি গ্রামে। কিছুদিন আগে বিকাল ৪টে নাগাদ তিনি নিজেদের পোষা ছাগল খুঁজতে প্রতিবেশী অজিত রুইদাসের বাড়ির দিকে যান। তখন মাঠ থেকে নিজের বাড়ি ফিরছিলেন অজিত । কি কারণে নেপাল তার বাড়ির কাছে ঘোরাঘুরি করছেন তা অজিত জানতে চায়। তা নিয়ে নেপালের সঙ্গে তার বচসা হয়। অজিত ও তাঁর স্ত্রী ছাগলকে দিয়ে জমির ফসল খাইয়ে দেবার অভিযোগ আনে নেপালের বিরুদ্ধে। এরপর বিকাল ৫টা নাগাদ মাঠ থেকে গোরু আনতে যান নেপাল।

অভিযোগ, সেই সময় তাঁকে একলা পেয়ে অজিত ও তার স্ত্রী একই মিথ্যা অপবাদ দিয়ে নেপালকে মারধর করে। এনিয়ে সন্ধ্যয় গ্রামে সালিশি সভা বসে। সেখানে নেপালকে চুড়ান্ত ভাবে অপমান করা হয়।সেই অপমান সহ্য করতে না পেরে নেপালবাবু মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন ।ওষুধ কিনতে যাওয়ার কথা বলে ওইদিন সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ তিনি বাড়ি থেকে বের হন। তারপর থেকে রাতে তিনি আর বাড়ি ফেরেননি। পরের দিন গ্রামের কাঁঠাল গাছ থেকে তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়।

মৃতের ছেলে ঝন্টু রুইদাস থানায় অভিযোগ দায়ের করে পুলিশকে জানান , মিথ্যা অপবাদ ও মারধোর সহ্য করতে না পেরে তাঁর বাবা আত্মঘাতী হয়েছেন। দায়ের হওয়া সেই অভিযোগের ভিত্তিতে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার ধারায় পুলিশ মামলা রুজু করে তদন্তে নেমে দম্পতিকে গ্ৰেফতার করে।

Related Articles

Back to top button
Close