fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

খাদ্য সঙ্কট রুখতে জেলায় পুরনো রেশন কার্ডেই দেওয়া হবে কুপন!

প্রদীপ্ত দত্ত, সিউড়ি: জেলায় অনেক গরিব মানুষের ডিজিটাল রেশন কার্ড না থাকায় কুপন জোগাড় করতে পারেন নি। ফলে রেশন থেকে মিলছে না খাদ্যদ্রব্য। অভুক্ত অবস্থায় থাকা এইসব পরিবারের কথা ভেবে পুরনো রেশন কার্ডেই আবেদনের ভিত্তিতে কুপন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জেলার খাদ্য দফতরের এক অধিকর্তা জানান তাঁদের কাছে এই বিষয়ে রাজ্যের কাছ থেকে নির্দেশাবলী এসেছে। ডিজিটাল রেশন কার্ড যাদের নেই তদের পুরনো রেশন কার্ডেই কুপন দেওয়া হবে যাতে তাঁরা এই লকডাউন সময়ে খাদ্য সঙ্কটে না পড়েন। দফতরের তরফ থেকে খুব দ্রুত পুরনো রেশন কার্ডে কুপন দেওয়া শুরু হবে বলে জানা গেছে।

জেলার প্রতিটি ব্লক অফিস ও পুরসভা এই আবেদন গ্ৰহণ করবে। প্রাথমিক ভাবে আবেদনকারীদের যেটা লাগবে সেটা হল আধার কার্ড, ভোটার কার্ড ও পুরনো রেশন কার্ডের প্রতিলিপি।  সিউড়ির ১ ও ২ নম্বর বল্কের সিউড়িরও প্রত্যন্ত গ্ৰামবসীদের অনেকের কাছেই ডিজিটাল রেশন কার্ড নেই । কাজের সন্ধানে অন্য রাজ্যে , জেলায় গিয়েছিলেন বহু খেটে খাওয়া মানুষ। তাদের কাছে এই বিষয়ে খবর ছিল না ফলে গত বছর আবেদন করতে পারেননি। নিম্ন আয়েরএইসব পরিবারের মানুষ পুরনো রেশন কার্ড থেকে কোন জিনিস পাচ্ছেন না । ফলে কষ্টের মধ্যে দিনযাপন করছেন। সিউড়ি ২ নম্বর ব্লকের হরিপুরের বাসিন্দা অজয় দাস জানান, ” আমার কাছে ডিজিটাল রেশন কার্ড নেই । ফলে পুরনো রেশন কার্ড দেখিয়ে রেশন দোকানে কিছু পাচ্ছি না। শুনছি পুরনো রেশন কার্ডে এবার কুপন মিলবে। কুপন পাওয়ার জন্য আবেদন করবো ”

আরও পড়ুন: নিজেদের উদ্যোগে রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরু করলেন পুরুলিয়ার কৃষ্ণপুর নতুনডি গ্রামের মানু

জেলার ভারতীয় মজদুর সঙ্ঘের সভাপতি তরুণ প্রামাণিক জানান, ” জেলায় অনেক মানুষ আছেন যারা এই সমস্যার মধ্যে পড়েছেন। সরকার বলছে রাজ্যের কোন মানুষ যাতে অনাহারে না থাকে কিন্তু তাদের দিকে নজর দেওয়ার মতো কোন পদক্ষেপ নেবেন। জেলার  ভারতীয় মজদুর সঙ্ঘের সভাপতি তরুণ প্রামাণিক জানান, ” জেলায় অনেক মানুষ আছেন যারা এই সমস্যার মধ্যে পড়েছেন। সরকার বলছে রাজ্যের কোন মানুষ যাতে অনাহারে না থাকে কিন্তু তাদের দিকে নজর দেওয়ার মতো কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। ফলে কষ্টের মধ্যে পড়ছেন বহু গরিব মানুষ। সরকার দ্রুত এইসব গরিব মানুষের জন্য ব্যাবস্থা নিক। ” তবে দেরি হলেও সরকারের এই নির্দেশে জেলার বহু মানুষের খাদ্য সঙ্কট মিলবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close