fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনায় মৃত্যু: পুলিশ কনস্টেবল ও SSKM নার্সের, জুয়েলারি ব্র্যান্ডের শীর্ষ কর্তারও

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: রাজ্যে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির সঙ্গে কলকাতা পুলিশেও বেড়ে গিয়েছে সংক্রমণ এবং মৃত্যু। মঙ্গলবার সকালে ব্যারাকপুরের এক হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল

বছর পঞ্চাশের দেবেন্দ্রনাথ তিরকি  নামে কলকাতা পুলিশের আরও কনস্টেবলের। এই নিয়ে কলকাতা পুলিশের ৬ জনের মৃত্যু এবং ১০০০ জনের সংক্রমণ ছাড়াল বলে জানিয়েছে লালবাজার। একই সঙ্গে এবার বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে মারা গেলেন  বছর ৩৩ এর এসএসকেএম হাসপাতালের নার্স প্রিয়াঙ্কা মণ্ডল। অন্যদিকে, পিয়ারলেস হাসপাতালে করোনার লড়াইয়ে মৃত্যু হল একটিিিি প্রখ্যাত জুয়েলারি প্রস্তুতকারক সংস্থার ভাইস চেয়ারম্যান শঙ্কর সেনেরও।

লালবাজার সূত্রে খবর, চারু মার্কেট থানার দেবেন্দ্রনাথ প্রায় এক সপ্তাহ আগে অসুস্থ হন। তাঁর শরীরে প্রাথমিক ভাবে কোভিডের উপসর্গ দেখা দিলে তাঁর করোনা টেস্ট করা হয়। রিপোর্ট পজিটিভ পাওয়া গেলে তিনি ব্যারাকপুরের একটি হাসপাতালে ভর্তি হন। কিন্তু সোমবার রাত থেকেই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। মঙ্গলবার সকালে চিকিৎসকদের সমস্ত চেষ্টা ব্যর্থ করে তাঁর মৃত্যু হয়। তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশের পাশাপাশি সরকারি বিমার ১০ লাখ টাকা তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে লালবাজার। ইতিমধ্যেই নারকেলডাঙা, কসবা, শ্যামপুকুর, আলিপুর-সহ লালবাজারের একাধিক কর্তা মিলিয়ে ১০০০-এরও বেশি পুলিশকর্মী সংক্রামিত হয়েছেন।

অন্যদিকে এদিনই বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে প্রিয়াঙ্কা মন্ডল নামে এক এসএসকেএমের নার্সেরও মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। হাসপাতালে কাজ করতে গিয়েই আক্রান্ত হন তিনি মারণ ভাইরাসে। এসএসকেএম হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের আইসিসিইউতে কর্মরত ছিলেন প্রিয়াঙ্কা। করোনা সংক্রমণে পর বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল। সেখানে প্রথমে সিসিইউ’তে রাখা হয়েছিল তাঁকে। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় ভেন্টিলেশন সাপোর্টও দেওয়া হয়। কিন্তু ক্রমশ অবস্থার অবনতি হচ্ছিল প্রিয়াঙ্কার। দিন দশকেরও বেশি সময় সেখানে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। কিন্তু মঙ্গলবার ভোররাতে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

Related Articles

Back to top button
Close