fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনাকে ভয় করলে ক্ষমতায় থাকা যাবে না, করোনা মুক্ত হয়ে বললেন বিধায়ক নির্মল ঘোষ

অলোক কুমার ঘোষ, ব্যারাকপুর: ২৫ দিন টানা লড়াই করে করোনা যুদ্ধ জয় করে করোনা মুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরেছেন পানিহাটির তৃণমূল বিধায়ক তথা তৃণমূল কংগ্রেসের মুখ্য সচেতক নির্মল ঘোষ । তবে করোনা মুক্ত হয়ে ফিরেই ফের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে নেমে পড়েছেন নির্মল বাবু ।

সোদপুর ট্রাফিক গার্ড আয়োজিত সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে বুধবার নির্মল ঘোষ বলেন, “বর্তমানে দেশ করোনা ইস্যুতে জাতীয় বিপর্জয়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে । এই পরিস্থিতিতে রাত দিন এক করে জনতার সেবা করছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । করোনাকে ভয় পেলে হবে না । করোনা কে ভয় পেলে এম এল এ, এম পি গিরি বা মন্ত্রীত্ব করা যাবে না । তাই মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মেনে করোনা সম্পর্কে সতর্ক ও সচেতন থেকে আমাদের চলতে হবে । করোনা সম্পর্কে সকলকে সচেতন হতে হবে । আগামী দিনে নিশ্চই করোনা মুক্ত সমাজ গড়ে উঠবে ।”

করোনা যুদ্ধ জয় করে জনতার মাঝে ফিরে এসে সোদপুরে ট্রাফিক গার্ডের “সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ” কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে পুলিশ কর্মীদের জন সচেতনতা মূলক বাইক মিছিলের সূচনা করলেন পানিহাটির তৃণমূল বিধায়ক তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল পর্যবেক্ষক নির্মল ঘোষ । ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের পক্ষ থেকে সোদপুর ট্রাফিক মোড়ে বুধবার দুপুরে সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ কর্মসূচির চতুর্থ বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয় । সেই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজ্য বিধানসভায় তৃণমূল কংগ্রেসের মুখ্য সচেতক তথা স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক নির্মল ঘোষ । সম্প্রতি তিনি করোনা মুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরে আসেন । সোদপুর ট্রাফিক গার্ডের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে তিনি বলেন, “করোনাকে ভয় করলে এম এল এ, এম পি বা পুলিশের কাজ বা জনসেবা করা যাবে না ।

আমি ২৫ দিন পর সুস্থ হয়ে ফিরেছি । দেশ এখন করোনার কারনে জাতীয় বিপর্যয়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে । কিন্তু আমাদের করোনা কে ভয় করলে চলবে না । রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, সতর্ক থেকে চলুন, সচেতন থাকুন, করোনাকে ভয় পাবেন না ।” এদিন সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ” কর্মসূচিতে উপস্থিত হয়ে রাজ্যের পুলিশ কর্মীদের কাজের ভুয়োসি প্রসংশা করেন নির্মল বাবু । তিনি বলেন, “আমফান পরিস্থিতি হোক বা করোনা, পুলিশ কর্মীরা দিনরাত এক করে অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছে ।

তাই পুলিশ কর্মীদের কাজে আপনারা সহযোগিতা করুন ।” জনতার কাছে তিনি অনুরোধ করেন, সকলেই যাতে ট্রাফিক আইন মেনে চলেন, মাস্ক ব্যবহার করুন এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সরকারি নির্দেশিকা মেনে চলেন । অন্যদিকে, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মস্তিষ্ক প্রসূত “সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ” কর্মসূচির চার বছর পূর্তি হল বুধবার । রাজ্য ব্যাপী সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ” প্রকল্পের বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠান চলছে । উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের আত্পুর সাব ট্রাফিক গার্ডের পক্ষ থেকে জগদ্দল ও নোয়াপাড়া থানার পুলিশের সহযোগিতায় শ্যামনগর চৌরঙ্গী মোড়ে ঘোষ পাড়া রোডের পাশে সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ কর্মসূচি পালনের মধ্যে দিয়ে জনগণকে সচেতন করলেন পুলিশ কর্মীরা । পথচলতি মানুষকে ট্রাফিক আইন মেনে চলার অনুরোধ জানানো হয়েছে বারংবার । গাড়ি চালকদের সিট বেল্ট পড়ে, গাড়ির সমস্ত কাগজপত্র সঙ্গে নিয়ে রাজ্য সরকারের সুনির্দিষ্ট ট্রাফিক আইন মেনে চলতে অনুরোধ করা হয়েছে ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে । বাইক চালকরা যাতে সব সময় হেলমেট পরে বাইক চালান সেই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে । ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আজ থেকে ৫ বছর আগে রাস্তায় যে পরিমাণ পথ দুর্ঘটনা ঘটত, এখন পথ দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে এসেছে । সাধারন মানুষকে পুলিশ কর্মীরা অনুরোধ করেছেন, কেউ যেন যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং না করেন । এদিন শ্যামনগর চৌরঙ্গি মোড়ে আতপুর ট্রাফিক গার্ডের এই অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে তিন জন ট্রাফিক গার্ডের কর্মীকে সম্মানিত করা হয় ।

Related Articles

Back to top button
Close