fbpx
কলকাতাহেডলাইন

SSKM থেকে পালিয়ে হেঁটেই অশোকনগরের বাড়িতে পৌঁছলেন রোগী! কাঠগড়ায় হাসপাতাল

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: দিন কয়েক আগেই এক গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে মাথায় গুরুতর চোট পান ওই ব্যক্তি। ভর্তি ছিলেন কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালের ট্রমা কেয়ার বিভাগে। হাসপাতাল থেকে রোগী সকলের চোখের আড়ালে পালিয়ে হেঁটে হেঁটেই বাড়ি ফিরল! হাসপাতালের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

উত্তর ২৪ পরগনা  অশোকনগর কল্যাণগড়ের বাসিন্দা ভোলানাথ সরকার তিন দিন আগে বসিরহাট যাওয়ার পথে গাড়ি দুর্ঘটনায় আহত হন। তাঁকে ভর্তি করা হয় কলকাতা এসএসকেএম হাসপাতালে। সোমবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ তিনি হাসপাতাল থেকে নিখোঁজ হয়ে যান। সিসিটিভিতে দেখা যায়, হাতে একটি কম্বল এবং সিরিঞ্জ নিয়ে বেরিয়ে আসছেন হাসপাতাল থেকে। তারপর থেকে তাঁর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। সোমবার রাত সাড়ে নটা নাগাদ অশোক নগরের বাড়িতে হেঁটেই পৌঁছন তিনি। এদিকে স্বাভাবিকভাবেই, রোগীর কোভিড পরীক্ষা করানো হয়েছিল। সোমবার সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি হাসপাতাল থেকে উধাও হওয়ার পরই তাঁর কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে। আর সে ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পরই SSKM হাসপাতালে কার্যত চাঞ্চল্য ছড়ায়।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, অশোকনগরের কল্যাণগড়ের ওই বাসিন্দা সোমবার দুপুর ২.৩০টে নাগাদ সবার অলক্ষ্যেই বেরিয়ে পড়েন বাইরে। রোগী বেপাত্তা দেখেই শোরগোল পড়ে যায়। হন্যে হয়ে খুঁজেও যখন পাওয়া যায়নি, তখন SSKM হাসপাতালের ট্রমা কেয়ার বিভাগে চিকিৎসাধীন ওই রোগীর সন্ধান পেতে সিসিটিভির দ্বারস্থ হতে হয় কর্তৃপক্ষকে। সেই ফুটেজেই ধরা পড়ে, সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি হাতে কম্বল এবং সিরিঞ্জ নিয়ে বেরিয়ে আসছেন হাসপাতাল থেকে। তারপর থেকেই শুরু হয় রোগীর খোঁজ। অবশেষে রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ জানা যায়, তিনি অশোকনগর পৌঁছেছেন। কিন্তু অসুস্থ শরীরে কীভাবে এতটা পথ হেঁটে গেলেন? উঠছে প্রশ্ন!

আরও পড়ুন: ফের হাসপাতালে ভর্তি হলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ

সূত্রের খবর, এরপরই নিখোঁজ রোগীর কোভিড রিপোর্ট আসে। যাতে তাঁর শরীরে করোনার উপস্থিতির উল্লেখ রয়েছে। স্বাভাবিকবশতই, নিখোঁজ করোনা রোগীকে নিয়ে আরও চাঞ্চল্য ছড়ায়। বাড়ি ফেরার পরও নাকি ওই রোগী স্পষ্ট করে কিছু বলতে পারছেন না। ঘটনা প্রসঙ্গে অশোকনগর কল্যাণগড় পৌরসভার প্রশাসক এসএসকেএম হাসপাতালকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন। কীভাবে এতদূরে বাড়িতে পৌঁছলেন তিনি, তা নিয়ে প্রশ্ন তো রয়েইছে, প্রশ্ন রয়েছে হাসপাতালের ভূমিকা নিয়েও । অশোকনগর কল্যাণগড় পৌরসভা পৌর প্রশাসক অনুপ রায় বলেন, “পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হওয়া দরকার। কী করে ওঁ কলকাতা থেকে অশোকনগরের বাড়িতে ফিরে এলেন, হাসপাতালে কর্মীরা কেন নজর রাখেন নি, তা খতিয়ে দেখা দরকার।” তবে ওই ব্যক্তিও এখনও স্পষ্ট করে কিছু বলতে পারছেন না।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close