fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ইমিউনিটি বাড়াতে কোভিড রোগীদের খাবারের পরিমাণ ও মূল্য বৃদ্ধির নির্দেশিকা স্বাস্থ্যভবনের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কমে গিয়েছে সুস্থতা বৃদ্ধির দৈনিক বৃদ্ধির গতি। আগে যেখানে প্রতি ২ দিনে ১ শতাংশ বৃদ্ধি ঘটছিল, সেখানে গত সপ্তাহখানেক ধরে খুব সামান্য হারে বাড়ছে দৈনিক সুস্থতার হার। তাই রাজ্যের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কোভিড রোগীদের পুষ্টিতে যাতে কোনও খামতি না থাকে, তার জন্য ফের খাদ্যতালিকায় বরাদ্দ ও পরিমাণ বাড়াল রাজ্য সরকার। এই মর্মে স্বাস্থ্য ভবনের তরফে নির্দেশিকাও জারি করা হয়েছে।

ভ্যাকসিন আবিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত রোগীর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে করোনা যুদ্ধে চাইছে রাজ্য সরকার। সেই কারণে প্রত্যেক চিকিৎসাধীন কোভিড রোগীর খাদ্যতালিকার বরাদ্দ ১৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৭৫ টাকা করা হয়েছে।

। তাই প্রথম থেকেই করোনা রোগীদের খাদ্যতালিকায় বিশেষ ভাবে জোর দিয়েছিল সরকার। কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে এই খাদ্যতালিকা যথেষ্ট নয় বলে অভিযোগ উঠেছে। তাই ফের মঙ্গলবার সকালে স্বাস্থ্য ভবনের তরফে নোটিশ দিয়ে নির্দেশ জারি করা হয়েছে, এবার থেকে ভর্তি থাকা রোগীদের ক্ষেত্রে দিনপ্রতি মাথাপিছু খাবার এর মূল্য হবে ১৭৫ টাকা করে।

নয়া খাদ্যতালিকায় রয়েছে, প্রতিদিন সকালে চা এবং দুটি করে বিস্কুট, তারপর ব্রেকফাস্টে দিতে হবে চারটি পাউরুটি, একটি ডিমসেদ্ধ, একটি কলা এবং ২৫০ এমএল দুধ। দুপুরে ভাল চালের ভাত দিতে হবে ১৫০ গ্রাম, ৫০ গ্রাম ডাল, ৮০ বা ৯০ গ্রাম ওজনের মাংসের পিস, ১০০ গ্রাম মরসুমি আনাজের তরকারি, ১০০ গ্রাম দই। সন্ধেয় ফের চা এবং দুটি বিস্কুট দিতে হবে সঙ্গে মুখরোচক টিফিন। রাতে দিতে হবে ১০০ গ্রামের ভাত বা সমপরিমাণ রুটি, ৫০ গ্রাম ডাল, ১০০ গ্রাম ওজনের মাছ বা মাংসের পিস, ৭৫ গ্রাম তরকারি। নিরামিষাশীদের জন্যও তালিকায় বরাদ্দ থাকছে ৮০-৯০ গ্রাম ওজনের পনির বা মাশরুম বা সয়াবিন বা রাজমার ডাল, সঙ্গে কিছুটা পরিমাণ অতিরিক্ত দুধ।

এর আগে জুন মাসের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, ব্রেকফাস্টে ৪ টি পাউরুটি, কলা ও ডিম, দুপুরে ১০০ গ্রাম ভাত, সবজি এবং ৫০ গ্রাম মাছ বা মাংস। দই রোজ দিতে বলা হয়েছিল। রাতেও মোটামুটি একই মেনু রাখতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তাতে বিশেষ লাভ না হওয়ায় এবার খাদ্যতালিকায় বদল আনল স্বাস্থ্যভবন। এতে রোগীদের অনেকের উপকার হবে বলে আশা স্বাস্থ্যকর্তাদের।

Related Articles

Back to top button
Close