fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পুজোর পর আসতে পারে করোনার ‘সুনামি’, কড়া পদক্ষেপের প্রস্তুতি স্বাস্থ্য দফতরের

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: ইতিমধ্যেই দেশ জুড়ে চিকিৎসকরা আশা প্রকাশ করেছেন, আগামী ১৪ দিনের মধ্যে বিশ্বের করোনা সংক্রমণের তালিকায় প্রথম স্থান করতে চলেছে ভারত। উৎসব মরসুম শুরু হতেই

পুজোর পরে করোনার সুনামি আসতে চলেছে, এই মর্মে মুখ্যমন্ত্রীকে বেশ কিছুদিন আগে চিঠিও দিয়েছিল ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টরস ফোরাম’। তারপরেও পশ্চিমবঙ্গে গত ১ মাসে প্রায় ২.২ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে করোনা পজিটিভ রেট। পুজো শপিং ও পুজোর প্রস্তুতি দেখে করোনা সুনামির পদধ্বনি অনুধাবন করেই পুজোর পর আগামী ৬ মাসের জন্য পরিকল্পনা করে রাখতে চাইছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর, এমনটাই সূত্রের খবর। আর তার জন্যে সমস্ত হাসপাতালগুলিকে প্রস্তুত থাকতেও বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মার্চ থেকে আগস্ট রাজ্যে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে থাকলেও
গত ১ মাসের ব্যবধানে করোনা ভাইরাসের পজিটিভ রেট ২.২ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে। এমনটাই জানিয়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের প্রধান সচিব নারায়ণস্বরূপ নিগম। তিনি বলেন, ‘চলতি বছরে আগস্টে পজিটিভ রেট ছিল ৬.৯ শতাংশ। এখন তা ৮.৪৮ শতাংশ।” স্বাস্থ্যসচিবের কথায়, ‘করোনা সংক্রমণ রুখতে উৎসব থেকে মার্চ পর্যন্ত টানা ছয় মাস বিশেষ পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আলাদা করে পরিকল্পনা না নিলে হাসপাতালে বেডের বন্দোবস্ত করা কঠিন হবে।’

স্কুল অফ ট্রপিক্যাল মেডিসিনের অধিকর্তা ডা. প্রতীপকুমার কুণ্ডু তো রীতিমত আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, “এমন অবস্থা হলে পুজোর সময় পজিটিভ হার ১০ শতাংশে পৌঁছে যাবে। অসুস্থতার সংখ্যা আরও বাড়বে। আমাদের আরও সচেতন হতে হবে।” স্বাস্থ্য দফতর উত্তরের দার্জিলিং, পশ্চিম ও পূর্ব মেদিনীপুর, হাওড়া, উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা এবং কলকাতার বিভিন্ন অংশের বাসিন্দাদের থেকে যে চিত্র পেয়েছে তা যথেষ্ট উদ্বেগজনক বলেই মনে করেন রাজ্যের স্বাস্থ্যসচিব নারায়ণস্বরূপ নিগম। পুজোর আগে সব জেলায় করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী। সেই কারণে আগামী ৬ মাসের পরিকল্পনা তারা ভেবে রাখছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য সচিব।

Related Articles

Back to top button
Close