fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তৃণমূল পরিচালিত গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানকে ঘিরে বিক্ষোভ

মিলন পণ্ডা, মারিশদা, (পূর্ব মেদিনীপুর): আমফান ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত স্বজনপোষনের অভিযোগ তুলে তৃণমূল পঞ্চায়েতের প্রধানকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাল সিপিএম কর্মী সর্মথকরা। ঘটনাটি ঘটছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি ৩ ব্লকের দূরমুঠ গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে। এই পঞ্চায়েত অফিস ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় সিপিএম কর্মী সর্মথকরা। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে যায় মারিশদা থানার পুলিশ।

আমফানের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ক্ষতিপূরণ নিয়ে স্বজনপোষনের অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখায় সিপিএম সদস্যরা। মঙ্গলবার দুপুরে বিক্ষোভ চলাকালীন এলাকার প্রধান পঞ্চায়েত অফিসে ঢুকতে গেলে গেটের সামনেই তাকে আটকে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে সিপিআইএম কর্মী-সমর্থকরা। তারপরে শুরু হয় দুই পক্ষের মধ্যে বচসা। ঘন্টাখানেক ধরে চলে দুই পক্ষের মধ্যে ধস্তাধস্তি। পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। গ্রাম পঞ্চায়েতে প্রধান অবশেষে বামফ্রন্টের ডেপুটেশন গ্রহণ করতে বাধ্য হয়। ক্ষতিপূরণের তালিকা তৈরীর আগে উভয় পক্ষকে ডেকে তালিকা তৈরি করার আশ্বাস দিয়েছেন বলে বামফ্রন্টের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

এলাকার প্রধান তাপসী দাস সাউ বলেন, আচমকাই এসে গন্ডগোল করা হয়েছে।ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করে ব্লকে পাঠাবো। তারপরে যা করার ব্লক প্রশাসনই করবে। যদিও বামফ্রন্টের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তালিকায় যদি পুনরায় স্বজনপোষণ করা হয় সেক্ষেত্রে তারা বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে।

এলাকার সিপিএম নেতা ঝাড়েশ্বর বেরা বলেন, সকল পঞ্চায়েত সদস্যদেরকে দলমত নির্বিশেষে সমান গুরুত্ব দিতে হবে। এক্ষেত্রে কোনও দলীয় স্বজনপোষণ করা চলবে না।

এদিন এই বিক্ষোভে উপস্থিত ছিলেন তাপস পড়্যা, মদনমোহন ঘোড়াই, রূপচাঁদ খান, সোমনাথ খুটিয়া,মহাদেব রানা, কালিপদ শিট প্রমুখ।

Related Articles

Back to top button
Close